বৃহস্পতিবার, ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

হোমনায় দুই ভাইয়ের পরিবারের সংঘর্ষে ১১ জন আহত

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ২১, ২০১৮
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার হোমনায় বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জেরে আপন দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। এতে নারীসহ উভয় পরিবারের অন্তত ১১ জন আহত হয়েছে। বুধবার (২০জুন) উপজেলার জয়দেবপুর মাথাভাঙা গ্রামে আবদুল আউয়াল ও আবদুল আলীম দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, আবদুল আউয়াল ও আবদুল আলীম তারা সৎ ভাই। দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে মুমূর্ষু অবস্থায় আবদুল আউয়াল (৭০) ও তার ছেলে- সুজন (৩২), মিজানুর রহমান (৩৫), আবদুল আলীস (৬০) ও তার ছেলে শাকিলসহ (২০) পাঁচ জনকে ঢাকা মেডেকেল কলেজ হাসপরাতালে স্থানান্তর ও আবদুল আলীমের স্ত্রী হোসনে আরা (৬০), আবদুল আউয়ালের স্ত্রী জেউর বেগম (৪৫) ও তার ছেলে খোকন (২২), ফুল মিয়ার স্ত্রী আখি আক্তার (৩০), ডালিমের স্ত্রী লাকীসহ (২৫) পাঁচজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আবদুল আলীমের আরেক ছেলে অলি আহদেকে (৩০) প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
কর্তব্যরত ডাক্তার মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে কারো হাত- পা ও মাথায় মারাত্মক জখম হয়েছে। এদরে মধ্যে পাঁচজনকে ঢাকায় রেফার এবং পাঁচজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে, একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আহত প্রত্যেকের হাত-পা, মাথাসহ শরীরে বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দ্বারা জখমের চিহ্ন রয়েছে।

১নং মাথাভাঙা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. নাজিরুল হক বলেন, বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ ছিল দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে। এ দিন এক ভাই সীমানাবেড়া দিতে গেলে আরেক ভাই বাধা দেয়। এতেই উভয়ের পরিবারের মধ্যে কথাকাটি ও পরে আপন চাচাতো ভাই ভাতিজাদের মধ্যেই সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পরিবারের লোকজনই মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েকজনকে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুল আহমেদ নিজামী জানান, বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই আপন দুই ভাইয়ের পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে কেউ থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।

আর পড়তে পারেন