সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

হাইমচরে ভিক্ষুক শাহজান মিয়ার পৈত্তিক সম্পত্তি ভূমিদস্যুদের দখলে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ১৫, ২০১৮
news-image

বিএম ইসমাইল, হাইমচর ঃ
চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার ৬নং চরভৈরবী ইউনিয়নের পাড়া বগুলা গ্রামের মোঃ শাহাজান মিয়ার রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষা করার মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে। পিতা- মাতা হারানোর সাথে সাথে বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করে দেন ভূমিদস্যু আবদুল আলী বেপারী গং ও আবুল কাশেম গংরা। মায়ের পৈত্তিক ওয়ারিশ পাওয়া সম্পত্তির (ভিটা মাটির) থেকে উচ্ছেদের পর শাহাজান মিয়া রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষা করা নিয়মিত পেশায় রুপ নেয়। অসহায় ভিক্ষুক শাহাজান মিয়ার দুঃখ ও কষ্ট দেখে স্থানীয় আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী আখন দেখাশোনার ভার নিয়েছেন ।

জানা যায়, হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী ইউনিয়নে মৃত রজব আলী বেপারীর এক মাত্র কন্যা ভিক্ষুক শাহজান মিয়ার মাতা সখিনা বেগম। সখিনা বেগমের পিতা-মাতার মৃত্যুর তার পৈত্তিক সম্পত্তি সখিনা বেগমের নামে বিএস আরএস খতিয়ান ভূক্ত হয়। জমির ৪৮৮৪ খতিয়ানে .১১০ শতাংশ যার দাগ নং ১০৮৩০ ও ১০৮৪৩ এবং ২৩৪৭ খতিয়ানে .৩৩৩ শতাংশ রেকর্ড হয়। সখিনা বেগমের কোন ভাই বোন না থাকায় তার পিতার ৫৩ শতাংশ ভূমির মালিক হন। সখিনা বেগম তার সংসার নিয়ে কিছু দিন ওই সম্পত্তিতে বসতবাড়ি তুলে থাকতেন। সখিনা বেগমের মৃত্যু পর তার একমাত্র ছেলে শাহাজান ওই সম্পত্তির দখলে আসলে সখিনা বেগমের দুঃসর্ম্পকের ফুফাত ভাই তাদেরকে বসতভিটা থেকে তুলে দেয়। ভিক্ষুক শাহজান মিয়া তার মায়ের পৈত্তিক সম্পত্তি ফিরে পাওয়ার জন্য হাইমচর উপজেলা চরভৈরবী ইউনিয়নে একটি মামলা করেও ভূমি খেকোদের সাথে পেরে উঠতে পারছেনা। উপায় না পেয়ে শাহাজান চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার নিকট তার জমি ফিরে পাওয়ার জন্য আরজি দায়ের করেন। বর্তমানের এ বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।
এ ব্যাপারে অসহায় ভিক্ষুক শাহাজান জানান, আমার নানার ওয়ারীশের জমি আমার মা পাবে। কিন্তু ওরা আমাকে বাড়ি থেকে উঠিয়ে দিয়েছে। আমি তার বিচার চাই।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ দেলোয়ার মিয়া জানান, দখলকারীরা সামাজিকতার বাহিরে থেকে অসহায় মানুষের জমি দখল করে রয়েছে । স্থানীয়ভাবে বসেও সমাধান করতে চেয়েছিম পারিনি। ভিকটিমরা চালাক দুষ্টু প্রকৃতির। এ বিষয়ে শাহাজান ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ করেছে।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হারুনুর রশিদ জানান, লোকটি গরিব ও অসহায়। প্রকৃতপক্ষে ওই সম্পত্তির মালিক শাহাজান। আমার আমলে এ বিষয়ে বহুবার বসার চেষ্টা করেছি। আমার জানা মতে শাহজান ইউনিয়ন পরিষদে একটি মামলা করেছে। শাহজান মিয়ার তার জমি ফিরে পাওয়ার জন্য জেলা প্রশাসক ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

আর পড়তে পারেন