মঙ্গলবার, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শুক্রবারে বাংলাদেশের সামনে আরব আমিরাত

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৬

masস্পোর্টস ডেস্ক: ভারতের বিপক্ষে মাশরাফিদের শুরুটা উড়ন্তই দেখতে চেয়েছিল সবাই। কিন্তু সেটা শেষ পর্যন্ত হয়ে ওঠেনি। যদিও ধোনির দলের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ভালো শুরু করেও সেটা ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। ফলে প্রথম ম্যাচে জয়টাও তাই হাতছাড়া হয়েছে টাইগারদের। আর তাই শুক্রবার নতুন পরীক্ষার সামনে সাকিব-মাশরাফিরা। বাছাই পর্বে দুর্দান্ত খেলেই চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করে নিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এশিয়া কাপে বাংলাদেশ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সেই আরব আমিরাতের মুখোমুখি হবে। শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। এ ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টিভি ও বিটিভি।

তুলনামূলক ভাবে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের সহজতম ম্যাচ হওয়ার কথা সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষেই। কিন্তু প্রথম ম্যাচ হারার পর এই ম্যাচটিও এখন দারুণ গুরুত্বপূর্ণ। মাশরাফিও ভারত ম্যাচের মতোই গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন আরব আমিরাতকে।

টুর্নামেন্টে টিকে থাকা, জয়ের ধারায় ফেরা; সবদিক থেকেই এই ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই স্বাগতিকদের। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘ক্রিকেটে হতে পারে যে কোনো কিছুই। ভারতের বিপক্ষে আমরা যেভাবে পরিকল্পনা করেছি, ঠিক একই রকম সমান গুরুত্ব দিয়ে আমাদের মাঠে নামতে হবে আরব আমিরাতের বিপক্ষেও। এই ম্যাচ খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য।’

মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারতের বিপক্ষে হারলেও সেই ম্যাচের টুকটাক প্রাপ্তিগুলোকে আমিরাতের বিপক্ষে ম্যাচে বয়ে নিতে চান স্বাগতিক অধিনায়ক। ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ চার পেসার নিয়ে একাদশ গড়েছিল। আরব আমিরাতের বিপক্ষে অবশ্য স্পিনের উপরই বেশি গুরুত্ব দেবে স্বাগতিকরা। একাদশ থেকে তাই একজন পেসারকে বাইরে রেখে আরাফাত সানিকে সুযোগ দিতে পারে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজম্যান্ট। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ অনুশীলন করেনি। টিম হোটেলেই টাইগার ক্রিকেটাররা শুয়ে-বসে কাটিয়েছেন। তবে আমিরাত এদিন প্রথম ম্যাচ খেলেছে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে।

টি২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশের ব্যাটিং ক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন আছে আগে থেকেই। তাই এই টুর্নামেন্টে তামিম ইকবাল না থাকায় ওপেনিং নিয়ে কিছুটা মাথা ঘামাতে হচ্ছে স্বাগতিকদের। ভারতের বিপক্ষে সৌম্য সরকারের সঙ্গে ওপেন করেছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। ইমরুল কায়েস ব্যাট করেছেন চারে। বাংলাদেশেরও লক্ষ্য কম্বিনেশন ঠিক করেই আরব আমিরাতের বিপক্ষে বড় জয় তুলে নেয়া।

বাংলাদেশের টি২০ সেরা ব্যাটম্যান সাব্বির রহমান ভারতের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেছেন। এশিয়া কাপের ফাইনালে যেতে হলে আরব আমিরাতের বিপক্ষে জয়ের পর, পাকিস্তান ও শ্রীলংকার বিপক্ষেও জিততে হবে মাশরাফি বিগ্রেডের। তবে শুক্রবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ হারলে শিরোপ লড়াই থেকে ছিটকে যাওয়ার উপক্রম হবে সাকিব-মাশরাফিদের।

অপরদিকে আরব আমিরাত নিজেদের পারফরম্যান্স দেখিয়েই এশিয়া কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। আরব আমিরাত নতুন দল হলেও বাছাইপর্বে তারা শক্তিমত্তার জানান দিয়েছে। প্রকৃত টি২০ মেজাজেই রানের ফুলঝুরি দেখিয়েছে ফতুল্লা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ও মিরপুর শেরেবাংলায়। বাছাইপর্বের তিনটি ম্যাচের প্রথমটিতে আফগানিস্তানকে হারিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। তাদের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে চার উইকেটে ১৭৬ রান করে। রোহান মোস্তফার ৫০ বলে ৭৭ ও শাহজাদের ১৬ বলে ২৫ রানই বলে দেয় আফগানদের বোলিং লাইন কতটা অসহায় ছিল। এমনকি র‌্যাংকিংয়ে নয়ে থাকা আফগানিস্তানের সঙ্গে লড়াই করেই তারা শীর্ষ দল হয়েছে। গ্রুপ পর্বের পারফরম্যান্সটা বাংলাদেশের বিপক্ষেও দেখানোর চেষ্টা করবে আরবের এই দলটি। আবার বৃহস্পতিবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভালো বোলিং করেছে আরব আমিরাত। গতবারের চ্যাম্পিয়নদের মাত্র ১২৯ রানে আটকে ফেলে তারা।

এখন দেখায় বিষয়, বাংলাদেশের বিপক্ষে কোন চমক দেখাতে পারে কি না, আরব আমিরাত। নাকি সহজ জয় দিয়ে এশিয়া কাপের শিরোপা লড়াইয়ে টিকে থাকবে টাইগাররা।

আর পড়তে পারেন