বুধবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মুরাদনগরে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ৯, ২০১৮
news-image

মাহবুব আলম আরিফঃ
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের এক তরুণীকে (১৬) গণধর্ষণের ঘটনায় একই উপজেলার কামাল্লা গ্রামের রুক্কু মিয়ার ছেলে জামালকে (৪০) গ্রেফতার করেছে মুরাদনগর থানা পুলিশ।

মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মঞ্জুর আলম জানান, উপজেলার কামাল্লা এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের এক তরুনীকে ধর্ষনের অপরাধে আসামী জামাল বেশ কয়েকদিন ধরে রাজধানী ঢাকার মিরপুরে গা ঢাকা দিয়ে অবস্থা করছে। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত শুক্রবার বিকেলে মুরাদনগর থানার (ওসি তদন্ত) ইয়াছিন গাজীসহ একদল পুলিশ ধর্ষক জামাল কে মিরপুর এলাকা থেকে আটক করে মুরাদনগর থানায় নিয়ে আসে। শনিবার সকালে কুমিল্লা বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হলে ধর্ষক জামাল সেখানে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, গত ১৩ মে সন্ধ্যায় মেয়েটি বাড়ির পাশেই টিউবয়েল থেকে পানি আনতে যায়। এ সময় জামাল, আরিফ ও তাদের সহযোগীরা মুখ চাপা দিয়ে তাকে কামাল্লা ইউনিয়ন পরিষদের পাশে পরিত্যক্ত তাঁতী বাড়িতে নিয়ে গণধর্ষণ করে। পরে ভোররাতে একই গ্রামের শরিফ মিয়া ধর্ষিতা মেয়েটিকে বাড়িতে ফিরিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় মেয়েটির মা পরদিন ১৪ মে স্থানীয় ইউপি মেম্বার জামালকে ঘটনাটি বিস্তারিত জানান। কিন্তু ঘটনার ১৮ দিন পার হলেও কোন বিচার না পেয়ে অসহায় মা বাদী হয়ে জামাল ও আরিফসহ দুজনের নাম উল্লেখ করে ২ জুন শনিবার মুরাদনগর থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন।

মুরাদনগর থানার ওসি একে এম মনজুর আলম বলেন, উপজেলার কামাল্লা গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের এক তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ধর্ষিতার মা। এ অভিযোগের ভিত্তিতে রাজধানী ঢাকার মিরপুর থেকে মামলার প্রধান আসামীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি এবং অন্য আসামিদের গ্রেফতারেও পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আর পড়তে পারেন