রবিবার, ১৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মাদক ব্যবসায়ীর ভারতে পলায়ন; বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ১২, ২০১৭
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্ট :

কুমিল্লায় পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে পিচ্চি জাফর নামে এক মাদক মামলার আসামি সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে চলে গেছে। এসময় মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট সদস্যরা পুলিশের উপর চড়াও হয় এবং একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে আত্মরক্ষায় পুলিশ ২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। ভারত সীমান্তবর্তী জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ভারত সীমান্তের ঘোরপাশা মাটিয়াতলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে নো-ম্যান্সল্যান্ড অতিক্রম করার অভিযোগে মঙ্গলবার বিএসএফ-বিজিবি’র মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুুষ্ঠিত হয়েছে।

পুলিশ, বিজিবি ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই হারুনুর রশীদ, এসআই মেজবাহ, এসআই মনিরুল ইসলামসহ একদল পুলিশ ভারত সীমান্তবর্তী উপজেলার ঘোরপাশা মাটিয়াতলী এলাকায় মাদক মামলার আসামি পিচ্চি জাফরকে আটক করতে যায়। এসময় আসামি জাফর ও তার মাদক সিন্ডিকেটের স্থানীয় সংঘবদ্ধ সদস্যরা পুলিশের উপর হামলা চালায়। একপর্যায়ে আসামি জাফর দৌঁড়ে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে ঢুকে চিৎকার করতে থাকে। এসময় উভয় দেশের কয়েকশ’ বাসিন্দা সীমান্তে জড়ো হয়। খবর পেয়ে বিজিবি ও বিএসএফ ঘটনাস্থলে যায়। এদিকে আসামি নোম্যান্সল্যান্ড অতিক্রম করার অভিযোগে বিএসএফ জরুরি পতাকা বৈঠকের আহবান করে।

চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবুল ফয়সাল বলেন, মাদক মামলার এজাহারনামীয় ৩নং আসামি মাদক ব্যবসায়ী পিচ্চি জাফরকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ধাওয়া করলে সে নো-ম্যান্সল্যান্ড অতিক্রম করে দৌড়ে ভারতের সীমানায় চলে যায়। অন্ধকার ও ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা হওয়ায় পুলিশ সদস্যরাও ওই এলাকায় সীমানা পিলারের কাছে ঢুকে পড়ে। এসময় জাফরের সহযোগী স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট পুলিশের উপর চড়াও হলে তারা (পুলিশ) বাংলাদেশের সীমানায় চলে আসে। একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের সীমানায় ঢুকতে চাইলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ২ রাউন্ড গুলি ছুড়ে।

এ বিষয়ে কুমিল্লাস্থ ১০ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল গোলাম সারোয়ার বলেন, এ ঘটনায় কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে। ভবিষ্যতে যেন এ ধরণের পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে বিষয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণ আলোচনা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন