শুক্রবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মহাধমনীর স্রোতে বাংলাদেশ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১
news-image

লেঃ কর্নেল মোঃ নাজমুল হুদা খান, এএমসি:

আমি আসিনি এ ধরায় তখনো,
হয়ত জানতে ছোট্ট দু’টো পা ফেলব
এ বাংলার সবুজ জমিনে।
তোমার ভাষায় মাকে
মা বলে ডাকব।

সীমাহীন আকাশের মত
বুক ফুলিয়ে বলব,
মা আমি ভালবাসি
তোমার পায়ে মাখা ধুলো,
দূর্বা ঘাস, ভোরের শুভ্র শিশির।

তোমরা জানতে,
হায়েনারা ওঁত পেতে ছিল,
হিংস্র থাবায় সে অধিকার কেড়ে নিতে।
এ বাংলার দূরত্ব বালক তোমরা,
কোন ভয়ে মেনে নেবে
ওদের দম্ভোক্তি?

তাই তো ঢাকার পিচঢালা পথে
নেমে পড়েছিলে দূরত্ব সাহসে,
ওদের বুলেট বুটকে উপেক্ষা করে;
অনাগত প্রজন্মের জন্য।
তোমাদের সাহসী মা,
আদরের ছোট বোন,
বাঁধা দেয়নি এক রত্তি।

তাঁরা স্বপ্ন দেখত,
এখানেই সমাপ্ত হবে বঞ্চনা।
এ রাজপথের লাল রঙে
ফুটবে টকটকে লাল শিমুল পলাশ,
মায়ের শাড়ীর সবুজ জমিন,
লাল-সবুজ পতাকা,
আমাদের স্বাধীনতা।

কি জানতো?
সেদিন ভাষার মিনার ছিলনা,
ছিল না প্রভাতী ছন্দ ও সুর,
তবে মায়ের কথার স্লোগানের ভয়ে
হায়েনারা হয়ে পড়েছিল সন্ত্রস্ত।
বুলেটের বিক্ষত তোমাদের মহাধমনীর স্রোতে
পিচঢালা পথ হলো রক্তাক্ত।

বায়ান্নের সে স্রোত,
বাংলা সাগরের মোহনায় মিশে
তৈরি হল একটি ভূখন্ড।
কুর্ণিশ তোমাদের ভাষা শহীদ।

তোমরা প্রিয় মায়ের জন্য
সবুজ পারের শাড়ী আনতে পারনি,
না পেরেছ আদরের বোনের জন্য
আনতে লাল পিরাণ।

কোটি মানুষের মায়ের ভাষা এনেছ,
গুন টানা মাঝির সুর এনেছ,
ভাওয়াইয়া ভাটিয়ালি কবিগান এনেছ,
লাল-সবুজ পতাকা এনেছ,
এনেছ প্রিয় বাংলাদেশ।

আর পড়তে পারেন