সোমবার, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বৃষ্টির দিনে চুলের যত্ন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১২, ২০২১
news-image

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ

বর্ষায় স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া সঙ্গে গরমে ঘাম হওয়ার কারণে চুল হয়ে থাকে ভেজা ভেজা। এ সময় ভেজা চুল শাকাতেও অনেক সময় লাগে। এর ফলে চুলে বাজে গন্ধের সৃষ্টি হয়।

এর কারণ হলো, চুলের গোড়ায় ঘাম বা ভেজা ভাব থাকার ফলে তেলের সৃষ্টি হওয়ায় এমন গন্ধের সৃষ্টি হয়। আবার

অনেক সময় নিয়মিত শ্যাম্পু করার পরেও এই গন্ধ থেকে মুক্তি মেলে না। তবে কিছু সহজ উপায় মানলে বর্ষায় চুলের বাজে গন্ধ সহজেই দূর হবে। জেনে নিন উপায়-

*বর্ষার এই সময় আর্দ্রতার কারণে চুলের গোড়ায় তেলের সৃষ্টি হয়। এতে করে চুল ও চুলের গোড়া চিটচিটে হয়ে থাকে এবং গন্ধ হয়। এজন্য নিয়মিত চুল পরিষ্কার করুন।

* বর্ষার মৌসুমে পানি খাওয়ার পরিমাণ কমিয়ে দেন অনেকেই। যা হতে পারে চুলের জন্য ক্ষতিকর। ক্যাফেইন আছে এমন পানীয় বা খাদ্যবস্তু এড়িয়ে চলুন। অতিরিক্ত ক্যাফেইনযুক্ত পানীয় খেলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। এর ফলে মাথায় ঘাম আর তেল জমতে শুরু করে করে।

*গোসলের পরপরই শুকনো তোয়ালে বা গামছা দিয়ে চুল ভালো করে মুছে ফ্যানের বাতাসে শুকিয়ে নিন। চুল বেশিক্ষণ ভেজা রাখলে বা দেরিতে শুকালে চুলে গন্ধ হয়।

* কখনোই চুল ভালো করে না শুকিয়ে বাঁধবেন না। এতে চুলের গোড়া ভেজা থাকায় দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। ভেজা চুল কথনোই আঁচড়াবেন না। শুকনো চুল খুব টাইট করে বাঁধবেন না। এতে চুল ঘেমে গন্ধ হয়ে যায়।

* পাশাপাশি চুলের স্টাইলিং টুল, হেয়ার স্প্রে, স্টাইলিং জেলের মতো জিনিসগুলো চুলে ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন।

*বর্ষায় চুলের বিভিন্ন সমস্যা এড়াতে নারকেল তেল হালকা গরম করে চুলের গোঁড়ায় ম্যাসাজ করুন। যা চুলের জন্য খুবই উপকারী। এ ছাড়াও চুলে গন্ধ হবার প্রবণতা কমে যায়।

* চুলে বেশি সময় তেল দিয়ে রাখতে না চাইলে, আগের দিন রাতে তেল লাগিয়ে পরের দিন সকালে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

* চুলে মেহেদি পাতা বেটে অথবা মেহেদি পাতার গুঁড়োর সঙ্গে পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে চুলে লাগান। এটি চুলকে খুশকি, ছত্রাকের আক্রমণ, ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন থেকে রক্ষা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সেইসঙ্গে চুলে ঘামের গন্ধও দূর করে।

* চুলের গোড়ায় ঘাম জমে গন্ধ হলে নিমযুক্ত টোনার তুলার বলে নিয়ে সারা স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করুন। ঘরে টোনার তৈরি করে নিতে চাইলে এক মুঠো নিমপাতা ভালোভাবে সেদ্ধ করে নিন। এই টোনার চুলের গোড়ায় স্প্রে করুন। জীবাণু সংক্রমণের ভয় থাকবে না এবং চুলে গন্ধও হবে না।

*অনেকেই চুলে শ্যাম্পু শেষ হয়ে গেলে বা তাড়াহুড়োয় সাবান দিয়ে চুল ধুয়ে নেন। সাবান চুলকে রুক্ষ করে দেয় এবং স্ক্যাল্পের ক্ষতি করে। তাই শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

*বাজারের হেয়ার পারফিউম ব্যবহার না করে ঘরেই তৈরি করে নিতে পারেন নিজের হেয়ার পারফিউম। একটি কাঁচের শিশি ধুয়ে শুকিয়ে নিন। এক কাপ গোলাপ জল ও এক কাপ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন।এতে আপনার পছন্দমত ১০ ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে দিন। তারপর কিছুক্ষণ রেখে দিয়ে কাঁচের শিশিতে ভরে নিন। তৈরি হয়ে যাবে আপনার ঘরোয়া হেয়ার পারফিউম তৈরি।

 

আর পড়তে পারেন