সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বরুড়ায় আ’লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ, ৮ জন আহত

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ২৩, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্র“পের মধ্যে সংঘর্ষে ৮ জন আহত হয়েছে। এসময় একটি মার্কেট ও ৫টি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে হামলাকারীরা। সংঘর্ষের সময় গোটা এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় বরুড়া উপজেলা সদরের মধ্য বাজার এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষকালে উভয় গ্র“প অর্ধশতাধিক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। এসময় গোটা উপজেলা সদরে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে এবং আতংকে সকল দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সাবেক এমপি মরহুম আবদুল হাকিমের ছেলে মাইনুল ইসলামকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয়। প্রতিপক্ষ হিসেবে বর্তমান সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা সোহেল সামাদকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামান। তিনি দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। এ নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে শুরু হয় ব্যাপক দ্বন্দ্ব।

সন্ধ্যায় উভয় গ্রুপই উপজেরা সদরে মিছিল বের করতে প্রস্তুতি নেয়। এসময় নৌকা প্রতীকের লোকজন হাসপাতাল রোডে এবং দোয়াত কলম প্রতীকের লোকজন আওয়ামী লীগ অফিস এলাকায় অবস্থান নেয়। এসময় বাজার এলাকায় চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে নৌকা প্রতীকের লোকজন মিছিল নিয়ে মূল বাজারের দিকে গেলে দোয়াত কলম প্রতীকের লোকজন এতে বাধা দেয়। এ মিছিলকে পন্ড করতে দোয়াত কলম প্রতীকের নেতাকর্মীরা প্রতিরোধ করতে গেলে দুই গ্র“পের মধ্যে ব্যাপক সংষর্ঘ শুরু হয়। সংঘর্ষের সময় উভয় গ্র“প অর্ধশতাধিক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। তারা দেশীয় অস্ত্র নিয়েও একে অন্যের উপর হামলা চালায়। এসময় উভয় গ্র“পের অন্তত ৮ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে সাফায়াত (১৮), ওমর ফারুক (৩০) আবদুল হাই (৫৫), দেলোয়ার (২৫), বেলায়েত (২৮) এর মান পাওয়া গেছে। তাৎক্ষণিকভাবে বাকিদের নাম পাওয়া যায়নি। হামলাকারীরা ৫টি মটর সাইকেল, শহীদ মমতাজ উদ্দিন সুপার মার্কেটসহ দুইটি মার্কেটে আগুন লাগায়।এসময় তারা বরুড়া ডক্টর কমিউনিটি হসপিটালের একটি এ্যম্বুল্যান্স ও ওই হসপিটাল ভাংচুর করে। বরুড়া ফায়ার সার্ভিস এস আগুন নেভায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শতাধিক রাউন্ড রাবার বুলেট ও টি আর শেল নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশ ছাত্রলীগ নাছিম নামে এক নেতাকে আটক করে।

এ ব্যাপারে বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছিল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। উপজেলা সদরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আর পড়তে পারেন