রবিবার, ১৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ফিরে আসুন খসরু ভাই

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ১৪, ২০২১
news-image

 

নাসির উদ্দিনের ফেসবুক থেকে:
খসরু ভাই, আমাদের জন্য হলেও ফিরে আসুন। এই নির্বাক ও অসার অবস্থা আর হাসপাতালের অচল বিছানা আপনাকে মানায় না। আপনি জনম যোদ্ধা। যুদ্ধ আর কৌশল করে করে নিজেকে আপনি প্রতিষ্ঠিত করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের আগে থেকেই পরিবারের ধারার বাইরে এসে শুরু করেছিলেন যুদ্ধ। স্বাধীনতার পরের ১১ টি সংসদ নির্বাচনের ৭ টিতে অংশ নিয়ে মাত্র ২ টিতে হেরেছেন। যে দুইটিতে হেরেছেন তাও আবার আপনাকে পথ দেখানো নেতার কাছেই। তাকে কি হার বলা যায়? মোটেও না। কারণ উনিও তো আপনারই নেতা এবং আমাদের বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়ার অন্যতম গর্ব, অধ্যাপক মোঃ ইউনূস।

মাত্রই তো আমরা আমাদের গর্বের এই অনন্য অভিভাবককে হারিয়েছি। দেশ জন্মের পর যে ১১ টি সংসদ গঠিত হয়েছে তাঁর ৯ টিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন আপনারা দু’জন। প্রতিবারই আমরা আপনাদের মধ্যেই যোগ্যতাকে খুঁজে দেখার চেষ্টা করেছি। বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়ার মানুষ কখনো বিত্তবানের কাছে মাথা বিক্রি করেনি। হ্যাঁ, অতি সৎ মানুষকে বেছে নিতে বিভাজিত হয়েছে। এজন্য জীবিতকালে শেষ সময়ে ইউনুস ভাই, কষ্ট পেয়ে আমাদের ওপর অভিমান করেছিলেন। আমরা তার কাছে ক্ষমা চাইতে পারিনি। সেই সুযোগ তিনি দেননি। তবে আমি নিশ্চিত; তিনি নিজ গুণে আমাদের ক্ষমা করে দিবেন। কারণ তাঁর মতো উঁচু মাপের ও মনের মানুষ সন্তানদের উপর রাগ রাখতে পারেন না। তাঁর মহানুভবতার জন্যই পুরো এলাকার মানুষ শেষ বিদায়ে তাঁর জন্য হাহাকার করেছে।
তাঁর চলে যাবার দিনেও আপনি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে পরেছিলেন। মানুষ সেদিন আপনাকে স্মরণ এবং দোয়া করেছে। কারণ আপনিইতো হয়ে উঠেছেন আমাদের আরেক পরিচয়। দেশের মানুষ যতটা বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়াকে জানে আপনাকে তার চেয়েও বেশি চিনে। আপনি কি ভেবে দেখেছেন, পারস্পরিক এই বাঁধন ছিঁড়ে গেলে; আমরা যে বড্ড এতিম-অসহায় হয়ে যাবো। এলাকার জমিন কাঁপানো শাসনের হুঙ্কার আর কে দেবে আমাদের? কে সামলাবে এই লক্ষ দুষ্ট বেপরোয়া সন্তানদের? এভাবে আমাদের অভিভাবকহীন করে অচল শুয়ে থাকা আপনাকে মানায় না। মাত্র ক’দিন আগে, সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচনে বুক চিতিয়ে যুদ্ধ করে বিজয়ী হয়েছেন। এবার আমরা আপনার আরেকটি বিজয় দেখতে চাই। দুষ্ট করোনার বিরুদ্ধে আপনি বিজয়ী হয়ে ফিরে আসুন আমাদের মাঝে।

লেখক:

নাসির উদ্দিন

সাবেক প্রতিনিধি- দৈনিক প্রথম আলো।

আর পড়তে পারেন