বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

‘প্রথমে বলছে ছেলে, তারপর বলে মেয়ে, শেষে যা ঘটলাে…

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৬

190413_1ঢাকা: রাজধানীর মোহাম্মদপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকের চিকিৎসক ও নার্সের বিরুদ্ধে মৃত নবজাতক দিয়ে জীবিত নবজাতক পরিবর্তনের অভিযোগ করেছে এক পরিবার। আজ মঙ্গলবার সকালে মোহাম্মদপুর ফার্টিলিটি সার্ভিস অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে।
নবজাতকের বাবা শামসুল ইসলাম অভিযোগ করেন, হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সরা তার নবজাতককে লুকিয়ে মরা মেয়ে নবজাতক বুঝিয়ে দিয়েছে। এর আগে তাঁর স্ত্রীর আল্ট্রাসনোগ্রাম করানো হলে চিকিৎসকরা ছেলেসন্তান হবে বলে জানান।
শামসুল ইসলাম বলেন, ‘প্রথমে বলছে ছেলে, তারপর (বলে) হইছে মেয়ে, তারপর মৃত।’
হাসপাতালের পরিচালক ডা. মনিরুজ্জামান সিদ্দিকী দাবি করেন, বিষয়টি সম্পূর্ণ ভুল বোঝাবুঝির কারণে হয়েছে। অপারেশনের আগেই নবজাতকটি মায়ের গর্ভে মৃত ছিল।
মনিরুজ্জামান সিদ্দিকী বলেন, ‘বাচ্চা যখন নিয়ে আসছে তখন আমার সিনিয়র কনসালটেন্ট নিজে উপস্থিত ছিলেন। বাচ্চার মা যখন ওঠে। সিনিয়র কনসালটেন্টও তাঁদের সঙ্গে উঠেছেন। উনি ডেলিভারি করানোর পরই বাচ্চার ডাক্তার সঙ্গে ছিলেন। দেখেই তিনি বলেছেন বাচ্চার পালস বা হার্টবিট নেই।’উৎসঃ এনটিভি

আর পড়তে পারেন