রবিবার, ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দেবিদ্বারে ৮১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইসিটি শিক্ষক নেই জোড়াতালির মাধ্যমে চলচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ২৮, ২০১৭
news-image

মোঃ জামাল উদ্দিন দুলাল ঃ
কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলায় ১০টি কলেজ, ৩৯টি স্কুল এবং ৩২টি মাদ্রাসাসহ মোট ৮১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বা আইসিটি বিষয়ের কোনো শিক্ষক নেই। ইসলাম শিক্ষা ও সমাজ বিজ্ঞানসহ অন্যান্য বিষয়ের শিক্ষক দিয়ে আইসিটি বিষয়ের মাধ্যমে চলচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম। অনভিজ্ঞ শিক্ষক সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জোড়াতালির ধারণা নিয়ে এবং বাজারে নিষিদ্ধ গাইড (নোট) বই পড়ে ষষ্ঠ, সপ্তম ও নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা বার্ষিক/অধবার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। এছাড়া ২০১৮ সালে এসএসসি ও এইচ এস সি পরীক্ষায় অংশ নেবে সেই সকল শিক্ষার্থীরা।
সূত্রেজানাযায়, উপজেলার ১৩টি কলেজের মধ্যে ১০টি, ৫০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৩৯টি,এবং ৩২টি মাদ্রাসায় একটিতেও আইসিটি শিক্ষক নেই। কোন কোন প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার সহ তথ্য প্রযুক্তির সরাঞ্জাম নেই। যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বা আইসিটি বিষয়ের কোনো শিক্ষক নেই, সে সব প্রতিষ্ঠানগুলো মধ্যে কলেজ গুলো হলোঃ- রাজামেহার ইঞ্জিনিয়ার মঞ্জুরুল আহসান মুন্সী আদর্শ কলেজ, দুয়ারিয়া এজি মডেল একাডেমী, ধামতী রৌওশন আরা কলেজ, এলাহাবাদ মহাবিদ্যালয়, দেবিদ্বার এস এ সরকারি কলেজ, বড়শালঘর আদর্শ কলেজ, আদর্শ টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ, গঙ্গামন্ডল মডেল কলেজ, গঙ্গামন্ডল বিজ্ঞান ও প্রযু্িক্ত কলেজ। স্কুল গুলো হলো- বাঙ্গুরী উচ্চ বিদ্যালয়, আবদুল্লাহপুর হাজী আমির উচ্চ বিদ্যালয়, রাজামেহার উচ্চ বিদ্যালয়, নবিয়াবাদ উচ্চ বিদ্যালয়, ফতেহাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়, মরিচাকান্দা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর এ আর উচ্চ বিদ্যালয়, বড়শালঘর ইউ এম এ উচ্চ বিদ্যালয়, বল্লভপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ধামতী হাবিবুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, কুরছাপ উচ্চ বিদ্যালয়, ভিরাল্লা এস কে উচ্চ বিদ্যালয়, গোপালনগর উচ্চ বিদ্যালয়, বাকসার উচ্চ বিদ্যালয়, ছোটনা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, চান্দপুর মডেল টেকনিক্যাল হাইস্কুল, চরবাকর উচ্চ বিদ্যালয়, দুয়ারিয়া এজি মডেল একাডেমী, এলাহাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়, সাইচাপাড়া বি জে এম এ মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়, তুলাগাও ডাঃ মহব্বত আলী উচ্চ বিদ্যালয়, মরিচা ছায়েদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়, মরিচাকান্দা জিয়া স্মৃতি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, মুগসাইর এগারগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়, প্রজাপতি ডি এল উচ্চ বিদ্যালয়, খয়রাবাদ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, বারুর আলী হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়, নুরপুর এম আলী এন্ড বারী উচ্চ বিদ্যালয়, ভানী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, বুড়িরপাড় উচ্চ বিদ্যালয়, সাইতলা আলহাজ্ব জুনাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়, মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়, হাজী আবিদ আলী হিলফুল ফুজুল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, ফতেহাবাদ কারিগরী উচ্চ বিদ্যালয়, বিহার মন্ডল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, অক্রাফোর্ট স্কুল , চুলাশ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, ইউসুফপুর আইডিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, নলীনি শিক্ষা নিকেতন। মাদ্রাসাগুলো হলো-সাহারপাড় গাউসুল আজম দাখিল মাদ্রাসা, সুবিল সলিম উল্লাহ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, এলাহাবাদ ডি জে এস দাখিল মাদ্রাসা, জাফরগঞ্জ দারুসুন্নাহ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, তুলাগাও দাখিল মাদ্রাসা, ভৈষেরকুট ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, জাফরাবাদ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, মহেশপুর পূর্বপাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, চন্দ্রনগর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, চরবাকর ডিএসআই আলিম মাদ্রাসা, নবিয়াবাদ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, বাঙ্গুরী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা,কটসার ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, গোপালনগর আঃ মজিদ খান জোহরা খাতুন দাখিল মাদ্রাসা, বারেরা মহিলা দাখিল মাদ্রাসা, ওয়াহেদপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, ফতেহাবাদ পীর ছাহেব মাওঃ ফজলুল হক জামেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা, পদুয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, মোহাম্মদপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, বাগমারা ইসলামিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসা, গুনাইঘর দারুসুন্নাহ আহমাদিয়া আলিম মাদ্রাসা, বল্লভপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, সুলতানপুর সিনিয়র ফাযিল মাদ্রাসা, দেবিদ্বার ইসলামিয়া ফাযিল ডিগ্রী মাদ্রাসা, রাজামেহার ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসা, জয়পুর মরহুম বারিয়া ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসা, ধামতী ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা, ছৈয়দপুর কামিল মাদ্রাসা, নুরমানিকচর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, বেতুরা দাখিল মাদ্রাসা ,প্রেমু মাদ্রাসা এবং বাবুর মোহাম্মদিয়া মাদ্রাসা।
এব্যাপারে দি ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজ’র অধ্যক্ষ মোঃ ময়নাল হোসেন মনির বলেন, ২০১২ সালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে মাধ্যমিক পর্যায়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয় বাধ্যতামূলক করে। এতে করে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরকার কম্পিউটার সহ নানা সরঞ্জাম দিয়ে থাকলেও আইসিটি’র শিক্ষক না থাকার ফলে শিক্ষার্থীরা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে হাতে-কলমে শিক্ষা পাচ্ছে না।
দেবিদ্বার আলহাজ¦ আজগর আলী মুন্সী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিষয়ের শিক্ষক মোঃ মামুনুর রশিদ জানান, আইসিটি বিষয়ে স্বল্প সময়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ শিক্ষক করে গড়ে তোলা সম্ভব নয়। কম্পিউটার প্রোগ্রামে পারদর্শী হতে একজন শিক্ষককে কমপক্ষে ছয় মাসের প্রশিক্ষণের প্রয়োজন।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আবু তালেব “দৈনিক আজকের কুমিল্লা”কে বলেন, ঘোষনার পূর্বে অনেকে’র আবেদন করা হয়নি। আমরা প্রত্যেকে স্কুল থেকে ৪ জনকে ১৪দিন করে শিক্ষদের প্রশিক্ষন দিয়েছি। আগামীতে এই সমস্যা থাকবে না।

আর পড়তে পারেন