সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দাউদকান্দিতে এসিড নিক্ষেপ করে মাদ্রাসা ছাত্রী হত্যা মামলায় এক জনের ফাঁসির আদেশ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৪, ২০১৭
news-image

আশিকুর রহমান সোহেল ঃ
২০১২ সালে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে এসিড নিক্ষেপ করে ড. মোশারফ হোসেন মহিলা মাদ্রাসার ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী ফারজানা আখতার হ্যাপি হত্যা মামলায় প্রধান আসামী সাদ্দাম হোসনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। এই মামলার অপর ৬ আসামীকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তৃতীয় আদালতের বিচারক এম আলী আহাম্মদ এই রায় দেন। মামলার প্রধান আসামী সাদ্দাম হোসেন পলাতক রয়েছে।
মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী মো: নুরুল ইসলাম জানান, ২০১২ সালের ১১ নভেম্বর রাতে দাউদকান্দির সোনাকান্দা গ্রামের ফারজানা আক্তার হ্যাপি, তার বোনের ছেলে ফয়সল মাহমুদ ও কাজের মেয়ে খাদিজাকে বাড়ির জানালা দিয়ে এসিড নিক্ষেপ করে আহত করে অভিযুক্তরা। এই ঘটনায় ১২ নভেম্বর হ্যাপির বাবা হাজী জালাল উদ্দিন দাউদকান্দি থানায় এসিড নিক্ষেপ আইনে মামলা দায়ের করে। ঘটনার ২২ দিন পর ঢাকার এসিড সারভাইবাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় হ্যাপি। ঘটনার ২ মাস পর ৭ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে চার্জশীট প্রদান করে পুলিশ। মামলার পর আসামীরা বিভিন্ন সময়ে আদালতে হাজির থাকলেও প্রধান আসামী সাদ্দাম হোসেন জামিনে গিয়ে পালিয়ে যায়।
মামলার ৩৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩১ জনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে মঙ্গলবার দুপুরে এই রায় দেয়া হয়। তবে মামলার রায়ে অসন্তোষ জানিয়েছে হ্যাপির পরিবার।

আর পড়তে পারেন