সোমবার, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

তিতাস উপজেলা শ্রমিক লীগের কমিটি নিয়ে গুঞ্জন!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ১২, ২০২১
news-image

জাকির হোসেন হাজারী:
কুমিল্লার তিতাস উপজেলা শ্রমিক লীগের কমিটি ঘোষণা নিয়ে এবং ভিন্ন আদর্শের এবং ভিন্ন দলের লোকজনকে অর্ন্তভূক্ত করায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় চলছে। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে পক্ষে-বিপক্ষে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

দলীয় সূত্র জানায়, তিতাস উপজেলা শ্রমিকলীগের নতুন কমিটিতে সাজ্জাদ শিকদারকে সভাপতি ও মোঃ আল আমীনকে সাধারণ সম্পাদক এবং তিতাস উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম মুন্সির ছোট ভাই রিপন মুন্সিকে সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইসলামী আন্দোলন তিতাস উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন ভূইয়াকে সদস্য করা করা হয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। ওই কমিটির সভাপতিসহ নেতৃবৃন্ধ বৃহস্পতিবার রাতে স্থানীয় এমপি সেলিমা আহমাদ মেরীকে ঢাকার বাসভবনে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। দলীয় ত্যাগী নেতা কর্মীদের বাদ দিয়ে বিএনপি ঘরানার লোক দিয়ে ঘোষণা দেয়া ওই কমিটি নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে ফেসবুকে এ নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য আসছে। উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সাজ্জাদ শিকদার একসময় বিএনপি ঘরানার প্রভাবশালী পরিবহন নেতা ছিলেন। আমাদেরকে তখন হাম্বালীগ বলে গালি দিতেন। এখন বিভিন্ন স্থানে ব্যানার ফেস্টুন টানিয়ে নিজেকে আওয়ামীলীগ নেতা বলে প্রচার করছেন। শুনেছি সে নাকি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচন করবে, আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চাইতে বা পাইতে দলীয় পদ পদবী দরকার, তাই হয়তো শ্রমিকলীগের সভাপতি হওয়ার প্রচার চালাচ্ছেন।

সাজ্জাদ শিকদার স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিনা আহমাদ মেরীর আত্মীয় হওয়ায় বলরামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কোন নেতা এবিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

তিতাস উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন ভূইয়া বলেন, উপজেলা শ্রমিকলীগের নতুন কমিটি হয়েছে কিনা জানিনা। এ সংক্রান্ত কোন কাগজ বা চিঠি পাইনি। শুনতেছি যে সাজ্জাদ শিকদারকে সভাপতি করা হয়েছে। সাজ্জাদ শিকদার আওয়ামীগের বা অঙ্গসংগঠনের কোন সদস্য পদ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার জানা মতে সে আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্যপদও গ্রহন করেননি। দলীয় গঠনতন্ত্রের কথা উল্লেখ করে বলেন, অন্য দল থেকে কেউ যোগদান করলে তাকে প্রাথমিক সদস্যপদ নেওয়ার একবছর পর সম্মেলনের মাধ্যমে অঙ্গসংগঠনের নেতৃতে আসতে পারে।

সাজ্জাদ শিকদার বলেন, আমি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। ১৯৯১ সাল থেকে আমি আওয়ামীলীগকে সমর্থন করে আসছি। আমার ভাগিনা পারভেজ হোসেন সরকা আওয়ামীগের উপজেলা চেয়ারম্যান, আরেক ভাগনী এমপি। আর শ্রমিকলীগের কমিটির কাগজ আজ শনিবার(১২ জুন) পাবো। আমি আওয়ামীলীগ করি তাই ব্যানার ফেস্টুনে আওয়ামীলীগ নেতা লিখেছি।

আর পড়তে পারেন