রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

তিতাসে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩, অস্ত্রসহ আটক-২

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৮
news-image

জাকির হোসেন হাজারী,দাউদকান্দিঃ
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ৩জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার সাতানী ইউনিয়নের স্বরশতিরচর গ্রামে এ ঘটনায় এলাকাবাসী মামুন ও পাভেল নামে ২জনকে এলজিসহ আটক পুলিশে নিকট সোপর্দ করেছে। এনিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায় ওই গ্রামের হেলাল গ্রুপ ও মিজান গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। সম্প্রতি এ দুই গ্রুপের মারামারি সংক্রান্ত ঘটনায় তিতাস থানায় পৃথক দু’টি মামলাও রয়েছে। তারই জের ধরে সকালে হেলালের ভাই তোফাজ্জল মিয়া (৩৫)কে হত্যার উদ্দ্যেশে পরিকল্পিতভাবে এলোপাতারী কুপিয়ে গুরতর আহত করে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তোফাজ্জলকে উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। মামুন ও পাভেল গং ফের বিকালে অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেলালের বাড়ীতে গিয়ে হামলা চালায় এসময় গ্রামবাসী মামুন ও পাভেলকে একটি এলজিসহ আটক করে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মামুন ও পাভেলকে থানায় নিয়ে আসে। এ বিষয়ে মিজান জানান তার ভাই মামুনকে হেলাল গ্রুপের লোকজন গ্রামের মধু মিয়ার ঘর থেকে ধরে নিয়ে মারধর করে এবং অস্ত্র দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। অপর দিকে হেলালের বড় ভাই করিম সওদাগর জানায় তার ছোট ভাই তোফাজ্জল ৫লাখ টাকা নিয়ে সকালে বাড়ী থেকে গৌরীপুর যাবার পথে ইউনিয়নের বারকাউনিয়া পৌছলে আগে থেকে ওত পেতে থাকা মামুন ও পাভেল গং আমার ভাইকে এলোপাতারী কুপিয়ে টাকা গুলি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

তিতাস থানার উপ-পরিদর্শক মনির হোসেন জানান, খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে দেখি শত শত নারী পুরুষের মাঝে মামুন ও পাভেলকে একটি এলজিসহ বেধে রেখেছে। এ অবস্থা থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা করে থানায় নিয়ে আসি।

আর পড়তে পারেন