বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চৌদ্দগ্রামের যুবলীগ নেতা জামাল হত্যার ৪ বছর: প্রধান আসামি গ্রেফতার হয়নি এখনো

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ১২, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
বিগত ২০১৬ সালের ৮ জানুয়ারি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি ও বাস মালিক জামাল উদ্দিন ওরফে বাক্কাকে হত্যা করা হয়। হত্যাকান্ডের প্রায় ৪ বছর পেরিয়ে যাচ্ছে। এখনো গ্রেফতার হয়নি প্রধান আসামি ওই ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা ইসমাইল হোসেন বাচ্চু প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও তাকে গ্রেফতার করছে না আইনশৃংখলা বাহিনী। বাচ্চু রীতিমত এলাকায় আসছে, জনপ্রতিনিধিদের সাথে ঘুরছে, মিটিং-সমাবেশ করছে। এমনকি হত্যাকান্ডের প্রধান স্বাক্ষী ছাত্রলীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন সাকিল ও মেম্বার প্রার্থী আলাউদ্দিনকেও হত্যা করেছে সেই বাচ্চু।

শনিবার (১২ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১ টায় কুমিল্লা নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে এক সংবাদ সম্মেলন করে এমন অভিযোগ করেছেন নিহত জামাল উদ্দিন ওরফে বাক্কার বড় বোন জোহরা আক্তার ও ছোট বোন সাবেরা খাতুন।

জোহরা আক্তার আরো বলেন, চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নে ইসমাইল হোসেন বাচ্চুর একচ্ছত্র আধিপত্য। সে সব সময় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে আসছে। এ বিষয়গুলোর প্রতিবাদ করেছে আমার ভাই জামাল উদ্দিন ওরফে বাক্কা। এর ফলে ২০১২ সালে প্রকাশ্যে জামালকে মারধর করে গুরুতর আহত করে বাচ্চু। ২০১৬ সালে হত্যাকান্ডের আগের দিনও মাননীয় সাংসদ মুজিবুল হক মুজিবের কাছে আমার ভাই বলেছে বাচ্চু আমাকে হত্যা করবে। এমপি সাহেব বলেছে করবে না। কিন্তু পরদিনই বাচ্চু আমার ভাইকে হত্যা করে। এরপর স্বাক্ষীকে হত্যা করে। আমরা পুলিশ-র‌্যাব সবার কাছে গিয়েছি। সবাই বলে উপরের নির্দেশ আছে বাচ্চুকে গ্রেফতার করা যাবে না। এমপি সাহেবের কাছে গেছি। উনি বলেছে –বাচ্চু গ্রেফতার হবে। কিন্তু ৪ বছরে এখনো গ্রেফতার হয়নি। বাচ্চু আমাকে আদালতেও হুমকি দিছে । বলেছে আমাদেরকে হত্যা করবে।

বাচ্চুর বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রামে দুটি, শাহআলী থানায় দুটি, পল্টন মডেল থানায় একটি ও যাত্রাবাড়ি থানায় একটি মামলা রয়েছে। আমরা জামাল হত্যাকারির বিচার চাই।

আর পড়তে পারেন