বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চান্দিনায় ৪টি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ , যান চলাচলে চরম ভোগান্তি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ২৬, ২০২১
news-image

 

চান্দিনা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে ৪টি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে ৩টি ব্রিজের উপরের স্ল্যাব ভেঙ্গে গেছে। এগুলো চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। যে কোন সময় ব্রিজগুলো ভেঙ্গে বড় দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে উপজেলার বেলাশ্বর-থানগাঁও সড়কে ঘুরে দেখা গেছে থানগাঁও এলাকায় খালের উপর ব্রিজটির উপরের স্ল্যাবে বড় একটি চক্রকার অংশ ভেঙ্গে রয়েছে। ব্রিজটির দুই সাইডের রেলিংও কয়েক বছর আগেই ভেঙ্গে নিচে পড়ে গেছে। এদিকে চান্দিনা বদরপুর সড়কে সিদ্ধেশ্বরী এলাকায় খালের উপরের ব্রিজটি কয়েক বছর আগে থেকেই ভেঙ্গে রয়েছে। অপরদিকে চান্দিনা বাড়েরা সড়কে ডুমুরিয়া উঁচু ব্রিজটির কমপক্ষে চারটি স্থানে ফাঁটল দেখা দিয়েছে। সামান্য মেরামত করা হলেও ব্রিজটি এখনও ঝুঁকিপূর্ণ। এছাড়া উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের কর্ণফুলী বাজারের দক্ষিণ অংশের সড়কে ব্রিজটি ভেঙ্গে চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

ঝুঁকিপূর্ণ এসব ব্রিজ দিয়ে প্রতিদিন চলছে শতশত যানবাহন। চলাচলে বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় জরাজীর্ণ ওই ব্রিজগুলোর উপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করছে সবাই।

চান্দিনা উপজেলার চান্দিনা- তেগুরিয়া সড়কের বেলাশ্বর থানগাও সীমান্তবর্তী এলাকায় ব্রিজটিতে যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এরপরে ও প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল করছে। ব্রিজের মাঝখানে ভেঙে বেশ খানিকটা জায়গায় ঢালাই উঠে রড দৃশ্যমান হয়ে গেছে। ওই অবস্থাতেই ব্রিজগুলো ওপর দিয়ে প্রতিনিয়ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক, পিকআপ, সিএনজি, মাইক্রোবাস, অটোরিকশা সহ ছোট, মাঝারি বিভিন্ন যান চলাচল করছে। ফলে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

সিএনজি চালক মো. মনির হোসেন বলেন- গাড়ি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করি। তাই প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে এই ভাঙ্গা ব্রিজের উপর দিয়েই আমাদের গাড়ি চালাতে হয়। প্রায়ই ব্রিজের ভাঙ্গা গর্তে গাড়ি পড়ে যায় তখন যাত্রীরা সহ ধাক্কা দিয়ে গাড়ি তুলতে হয় গর্ত থেকে।

যাত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন- আশেপাশের ৫ গ্রামের মানুষ উপজেলা সদরে পৌঁছতে সিদ্ধেশ্বরী সড়ক হয়েই যাতায়াত করতে হয়। এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়কে ব্রিজ ভাঙ্গা এটা খুবই ভোগান্তির। আমরা চাই অতি দ্রুত নতুন ব্রিজ নির্মাণ করা হোক।

এ ব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলম- ২টির পুন:নির্মাণের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। বর্তমান অর্থ বছরে এইগুলো সহ আরো ৫টি ব্রিজের নির্মাণ কাজের প্রস্তাবনা স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর কাজ চলছে।

এ ব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী জানান, ব্রিজগুলোর বিষয়ে আমরা অবগত আছি। চলতি অর্থ বছরে মন্ত্রণালয়ে প্রকল্প পাঠানো হবে। অনুমোদন পেলেই নির্মাণ করা হবে।

আর পড়তে পারেন