মঙ্গলবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চান্দিনায় ১৩ বছরের শিশু এইচএসসি পাশ!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ২৫, ২০১৭
news-image

 

সেলিম সজীবঃ

নাম রাতুল, বয়স ১৩। চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশে কুমিল্লা বোর্ডের ফলাফল বিপর্যয়ে পিছিয়ে নেই চান্দিনা উপজেলা সদরের প্রধান দুইটি প্রতিষ্ঠান। চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ থেকে মাত্র ২৪ শতাংশ হারে শিক্ষার্থীদের পাশ করার পরও ওই কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে একমাত্র পাশ করেন রাতুল আলম। ওই কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে নিয়মিত ১৫ জন ছাত্র পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করলেও রাতুল ৪.০৮ পেয়ে পাশ করে। রাতুল আলম চান্দিনা উপজেলা সদরের হাসপাতাল রোডের ডা. মোর্সেদ আলম ও মাতা নাছরিন আলম এর বড় ছেলে। ২০০৪ সালের ২১ জানুয়ারী জন্ম নেয় রাতুল। ২০০৯ সালে মাত্র ৫ বছর বয়সে মা-বাবা কোলে থেকেই পঞ্চম শ্রেণীর লেখাপড়া শেষ করে ওই শিশু। ২০১২ সালে চান্দিনার কেরনখাল উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণীতে ভর্তি হয়ে ওই বছর জুনিয়র সার্টিফিকেট পরীক্ষায় পাশ করে ২০১৩ সালে নবম শ্রেণীতে ভর্তি হয় সে। ওই ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালে ১১ বছর বয়সে একই স্কুল থেকে ‘এ গ্রেড’ পেয়ে উত্তীর্ণ হয় শিশু রাতুল। ২০১৫-১৬ শিক্ষা বর্ষে চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজে ভর্তি হয়ে ২০১৭ সালে ওই কলেজ থেকে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে সে। পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে ১৫জন পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করলেও একমাত্র রাতুল ছাড়া আর কেউ পাশ করেননি। জিপিএ-৫ না পাওয়ায় হতাশ রাতুল। নির্ধারিত পয়েন্ট না থাকায় মেডিকেলে ভর্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তার। এ নিয়ে সরকারের শিক্ষা পদ্ধতিকে দায়ী করেন তার অভিভাবক।

চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এর অধ্যক্ষ মনিরুল ইসলাম ভূইয়া জানান, রাতুল এর বয়স ১৩ বছরের বেশি হবে ।

 

আর পড়তে পারেন