মঙ্গলবার, ১৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চান্দিনার বাড়েরায় শিয়াল ছানা জবাই করে রান্না: অভিযুক্তদের জেল-জরিমানা

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ৯, ২০২০
news-image

 

শরীফুল ইসলাম, চান্দিনা ঃ
কুমিল্লার চান্দিনায় শিয়াল ছানা জবাই করে রান্না করার অপরাধে খোরশেদ আলম (৫০) নামে একজনকে ৬ মাসের কারাদন্ড ও চার জনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

রবিবার (৮ মার্চ) সন্ধ্যায় চান্দিনা উপজেলার বাড়েরা ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামে এ ঘটনার পর রাত সাড়ে ৮টায় তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) স্নেহাশীষ দাশ ওই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

এসময় ১টি শিয়াল ছানার রান্না করা মাংস, অপর একটি শিয়াল ছানার কাচা মাংস উদ্ধার করে ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় আরও ৫টি শিয়াল ছানাকে বনে অবমুক্ত করে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

৬ মাসের দন্ডপ্রাপ্ত খোরশেদ আলম রামচন্দ্রপুর (টাটেরা) গ্রামের মৃত সৈয়দ আলীর ছেলে। এছাড়া একই গ্রামের মৃত জোহর আলীর ছেলে ওবায়েদুল (৬৫) তার ভাই মফিজ (৫৫) কে ১০ হাজার টাকা করে ২০ হাজার এবং সিরাজুল ইসলাম এর ছেলে জাকির হোসেন (২৮)কে ৫ হাজার এবং মৃত আব্দুল লতিফ এর ছেলে মো. চারু মিয়া (৩০)কে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট স্নেহাশীষ দাশ জানান- বাড়েরা ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের সংঘবদ্ধ ওই ৫ জন মিলে বাঁশ বাগানের একই গর্ত থেকে ৭টি শিয়াল ছানা বাড়িতে এনে ২টি জবাই করে। পরবর্তীতে জবাই করার জন্য আরো ৫টি শিয়াল ছানা একটি ঝুড়িতে রেখে দেয়। খবর পেয়ে খোরশেদ এর ঘর থেকে রান্না করা ও কাঁচা মাংস উদ্ধার করি এবং ওবায়েদুল এর ঘর ৫টি শিয়াল ছানা উদ্ধার করে শিয়ালের ওই গর্তে অবমুক্ত করি।

খোঁজ নিয়ে জানতে পারি খোরশেদ আলম নিজ হাতে শিয়ালের ২টি ছানা জবাই করে এবং তার স্ত্রী রান্না করছিল। যার ফলে পশু নির্যাতন আইন ১৯২০এর ৭ ধারা খোরশেদ আলমকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় ৪ জনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আর পড়তে পারেন