সোমবার, ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রাম ও বান্দরবান থেকে দাউদকান্দিতে জোড়াখুনের মামলার ২ আসামি গ্রেফতার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ১৮, ২০১৭
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার সাঈদ ও মোহাম্মদ আলীর খুনের মামলার অন্যতম দুই আসামি শুক্কুর আলী ও মাসুদ মিয়াকে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ ।

সোমবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় কুমিল্লা ডিবি পুলিশ এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে ভোররাতে চট্টগ্রাম ও বান্দরবন জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ডিবি পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার হওয়া শুক্কুর আলী (২৭) দাউদকান্দি উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের মৃত. আবছার মিয়ার ছেলে ও মাসুদ মিয়া (২৫) একই উপজেলার মাওড়াবাড়ি গ্রামের মৃত অহেদ মিয়ার ছেলে ।

সোমবার বিকালে তারা হত্যার দায় স্বীকার করে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফরহাদ রায়হান ভূঁইয়ার আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। চলতি বছরের গত ১ এপ্রিল বিকালে জেলার দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর উত্তর বাজার এলাকায় এ জোড়াখুনের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, জেলার তিতাস উপজেলার জিয়ারকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মনির হোসেন সরকার গত বছরের ৮ নভেম্বর দুর্বৃত্তের হাতে খুন হন। এ মামলার এজাহারনামীয় আসামি ছিলেন দাউদকান্দি উপজেলার দক্ষিণ পেন্নাই গ্রামের আবদুস সামাদের ছেলে সাঈদ ও একই গ্রামের আবদুস সোবহানের ছেলে মোহাম্মদ আলী। মামলার পর থেকে তাদের দুইজনের সঙ্গে চেয়ারম্যানের লোকজনসহ পরিবারের বিরোধ চলে আসছিল। গত ১ এপ্রিল বিকালে সাঈদ ও মোহাম্মদ আলী প্রাইভেটকারযোগে দাউদকান্দির গৌরীপুর উত্তর বাজার এলাকা দিয়ে তিতাস যাচ্ছিলেন। এসময় নিহত মনির চেয়ারম্যানের সমর্থক শুক্কুর আলী ও মাসুদসহ সঙ্গীয় লোকজন রাস্তা ঘেরাও করে তাদেরকে প্রাইভেটকার থেকে নামিয়ে এলোপাতারি পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর সাঈদ এবং ৭ এপ্রিল ঢাকার একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোহাম্মদ আলী মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত সাঈদের মা আমেনা বেগম বাদী হয়ে ১৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি জেলা ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শাহ কামাল আকন্দের নেতৃত্বে এসআই শহিদুল ইসলামসহ ডিবি’র একটি দল চট্টগ্রামের পাহাড়তলী এলাকা থেকে মাসুদকে এবং বান্দরবন সদর এলাকা থেকে শুক্কুর আলীকে গ্রেফতার করে ভোররাতে কুমিল্লা ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে আসে।

কুমিল্লা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনজুর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রকাশ্য দিবালোকে চাঞ্চল্যকর এ জোড়াখুনের ঘটনার সময় স্থানীয়ভাবে মোবাইল ফোনে ধারণকৃত ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে গ্রেফতারকৃত ২ আসামিসহ অন্যদের শনাক্ত করা হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আর পড়তে পারেন