বৃহস্পতিবার, ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গ্রেফতারের পূর্বে র‌্যাবকে ১০ কোটির প্রস্তাব দিয়েছিলেন শামীম

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

যুবলীগ নেতা ও প্রভাবশালী ঠিকাদার গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমের নিকেতনের অফিসের শুক্রবার অভিযান ও তল্লাশি চালায় র‌্যাব। এ সময় জি কে শামীম র‌্যাব কর্মকর্তাদের অভিযান ও তল্লাশি না করার পরিবর্তে র‍্যাবের এক কর্মকর্তাকে বড় অংকের ঘুষ দেওয়ার প্রস্তাব দেন। তবে র‌্যাব তার প্রস্তাবে রাজি না হয়ে অভিযান চালায়। জব্দ করা হয় নগদ টাকা, সরঞ্জাম, এফডিআরসহ মাদক।

র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. সারওয়ার-বিন-কাশেম বলেন, ‘জি কে শামীম তার অফিস ও বাসায় অভিযান না চালাতে এবং গ্রেপ্তার এড়াতে আমাকে ১০ কোটি টাকার ঘুষ প্রস্তাব করেছিলেন। প্রস্তাব আমলে না নিয়ে আমরা জি কে শামীমের কার্যালয়ে অভিযান চালাই, তাকেসহ তার সাত দেহরক্ষীকে গ্রেপ্তার করি।’

তিনি বলেন, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, মানি লন্ডারিংয়ের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তিনি এখন ডিবি হেফাজতে।

এদিকে, রিমান্ডে নেয়ার আগে শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদে করে র‌্যাব। দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, জিজ্ঞাসাবাদের পর শামীম গণপূর্ত অধিদফতরের ২০ জন সাবেক সরকারি কর্মকর্তার নাম বলেছেন, যাদের মাসে ২-৫ লাখ টাকা দিতেন তিনি। সরকারি কর্মকর্তারা টাকার বদলে শামীমকে ঠিকাদারির কাজের টেন্ডার পেতে সাহায্য করতেন।

আর পড়তে পারেন