মঙ্গলবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গাজীপুরে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপি বিপুল ভোটে জয় লাভ করবে -শওকত মাহমুদ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ২, ২০১৮
news-image

 

এম এইচ বিপ্লব সিকদার :

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক শওকত মাহমুদ বলেছেন, ভোট বিপ্লবের জন্য জনগণ মুখিয়ে আছে। জনগণ ভোট দিতে চায়, ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে চায়। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে গাজীপুরে বিএনপি প্রার্থী বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে বলে আমরা আশা করছি।

বুধবার গাজীপুর মহানগরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণার সময় সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন। এ সময় তার সাথে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ও মিডিয়া সেলের প্রধান ডা. মাজহারুল আলম, সাংবাদিক নেতা বিএফইউজের মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি (ডিইউজে) কাদের গণি চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, জাতীয় প্রেসক্লাবে যুগ্ম সম্পাদক ইলিয়াস খান

, ডিইউজে’র সহ-সভাপতি শাহীন হাসনাত, ডিইউজের দপ্তর সম্পাদক শাহজান সাজু, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাহী সদস্য মাহমুদা ডলী, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাচ্চু, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ক্বাফী কামাল, দৈনিক দিনকলের বার্তা সম্পাদক রাশেদুল হক, বিএনপি নেতা সুরুজ আহমেদ, বাশির আহমেদ বাচ্চু, জিয়া পরিষদের গাজীপুর সদর থানা সভাপতি মাফিকুর রহমান সেলিম, সাধারণ সম্পাদক আজহার মন্ডলসহ স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মীরা প্রচারণায় অংশ নেন।

শওকত মাহমুদ বলেন, ‘লেভেল প্লেইং ফিল্ড’ বলে যে কথাটি আছে সেখানে আমরা লক্ষ্য করছি, গাজীপুরে ধানের শীষের পক্ষে যারা কাজ করছেন, তাদেরকে সঠিকভাবে কাজ করতে দেয়া হচ্ছে না। নৌকার পক্ষে মিছিল হচ্ছে কিন্তু ধানের শীষের পক্ষে যারা মিছিল করতে যায়, তাদেরকে মিছিল করতে দেয়া হচ্ছে না। বিভিন্ন জায়গায় কর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। আমরা আহ্বান জানাচ্ছি, নির্বাচনী প্রশাসন যেন এ বিষয়গুলো সমাধান করেন। যদি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ভোট না হয়, তাহলে গাজীপুরের জনগণ সুষ্ঠু ভোটের জন্য রাস্তায় নেমে আসবে। যদি নির্বাচনে কাউকে বাধা দেয়া হয়, ভোট দিতে না দেয়া হয়, কেন্দ্র দখলের মতো কোনো ঘটনার পিছনে শুধু মাত্র সরকারি দল, প্রশাসন ও সরকারি দলের প্রার্থীই এসবের জন্যে দায়ী হবেন।

তিনি বলেন, আমরা আপাতত চাচ্ছি, যাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদেরকে মুক্তি দেয়া হোক এবং একইসঙ্গে সমস্ত ওয়ার্ডে সব নির্বাচনের প্রার্থী যারা আছেন, সব দলের প্রার্থীই যেন প্রচারণার ক্ষেত্রে সম সুবিধা ভোগ করেন। কেউ বেশি ভোগ করবেন, কেউ কম ভোগ করবেন- তা কিন্তু হবে না এবং সবাই সমানভাবেই তাদের প্রচার চালাতে পারবেন, নির্বিঘ্নে, নির্ভয়ে ও বিনা গ্রেফতারে ।

পুলিশ প্রশাসনকে আহ্বান জানিয়ে শওকত মাহমুদ বলেন, রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী যারা আছেন, ২০ দলীয় নেতা-কর্মীরা যারা আছেন – তারা যেন স্বচ্ছন্দে এই নির্বাচনে প্রচার চালাতে পারেন, ভোটারের কাছে যেতে পারেন।

তিনি ভোটারদের কাছে আহ্বান জানিয়ে বলেন, ১৫ মে আপানারা যার যার ভোট কন্দ্রে উপস্থিত হবেন এবং আপনাদের পছন্দ মতো প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বাংলাদশে নির্বাচনের ক্ষেত্রে এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন- এটাই হচ্ছে আমাদের প্রত্যাশা।

আর পড়তে পারেন