মঙ্গলবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লা সদরের পাঁচথুবি ও জগন্নাথপুর ইউনিয়নে চাল বিতরণে অনিয়ম !

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ২২, ২০২০
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টার:
সারাদেশে সরকারি ত্রানের চাল ও ওএমএসের চাল চুড়ির হিড়িক পড়েছে। এর ধারাবাহিকতা  কুমিল্লা জেলায়ও দেখা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম, মুরাদনগর, দেবিদ্বারে এমন অবস্থা দেখা গেছে। এবার চাল বিতরণে অনিয়ম দেখা গেছে কুমিল্লা সদরের দুই ইউনিয়নে। বাতিল করা হয়েছে পাঁচথুবী ইউনিয়ন পরিষদের ডিলারশিপ। জগন্নাথপুরে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের  কথা বলেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ।

পাঁচথুবীর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য শফিকুল ইসলাম জানান, গত ৪ বছর ধরে এ পরিষদের অধীনে তালিকাভূক্ত ১২০ গরিব পরিবার চাল পায় না। ৫নং ওয়ার্ডে  ৮৮টি পরিবারের কার্ড আছে, চাল পায় না। চার বছরে ডিলার প্রতি কার্ডে ১৭ বস্তা চাল উত্তোলন করে কাউকে দুইটি, কাউকে তিনটি চালের বস্তা দেয়। কয়েকটি ঘর আছে, এক বস্তা চালও গত চার বছরে পায়নি। পাঁচথুবীর চেয়ারম্যানের আপন বোন দেলোয়ারা বেগমের নামে একমাত্র ডিলারশিপ। যা দেখাশোনা করেন, তার স্বামী আবুল মিয়া। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ করি।

এ বিষয়ে পাঁচথুবী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো. ইকবাল হোসেন বাহালুল জানান, কেউ যদি চাল না পেয়ে থাকে, আমার নিকট অভিযোগ করবে। ২-৩ বছর ধরে এমন কোন অভিযোগ পাইনি। চলতি বছর এসব কথা শুনি। যেহেতু বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে, আমি কোন এ বিষয়ে মন্তব্য করবো না।

অন্যদিকে জগন্নাথপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ বলেন, তোফায়েল মেম্বারের বিরুদ্ধে চাল ছাড়াও আরো বহু অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। তাকে একাধিকবার ডেকে সকল মেম্বারদের সামনে মৌখিক ভাবে সতর্ক করা হয়েছে। তাকে আমরা মাসিক সভায় পাই না, প্রয়োজনে কল দিলে মোবাইলেও পাই না। জগন্নাথপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের তোফায়েল মেম্বারের ওয়ার্ডে গরিব বেশি, আর তিনিই অনিয়ম বেশি করেন। গরিব বেশি তাই আমি বরাদ্দও বেশি দিয়ে থাকি। তার এলাকার মানুষ তার বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ নিয়ে প্রায় আসে। বিষয়টি সদরের ইউএনও মহোদয়কে অবগত করেছি।

এ বিষয়ে জানতে, অভিযুক্ত তোফায়েল মেম্বারের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন নম্বরে একাধিকবার চেষ্টা করে বন্ধ পাওয়া যায়।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ইন্সপেক্টর আরিফুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা তোফায়েল মেম্বারের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা  করে ২৩টি সরকরি চালের খালি বস্তা উদ্ধার করি। তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলমান আছে।

আদর্শ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া আফরিন জানান, জগন্নাথপুর ইউনিয়নে এক মেম্বারের অনিয়মের বিষয়ে অবগত হয়েছি। এটারও সত্যতা যাচাই করে, যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আর পাঁচথুবী ইউনিয়ন পরিষদের অনিয়ম নিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে অনিয়মের বিষয়ে সত্যতা পাওয়া গেছে। আমরা এ ডিলারশিপ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

আর পড়তে পারেন