সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লায় ২ কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করার জেরেই খুন হয় সুমন, গ্রেফতার হয়নি কেউ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৩, ২০২১
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লা ইপিজেডের সিং সাং সু নামে চীনা কোম্পানির চাকরিচ্যুত দুই কর্মচারী ক্ষিপ্ত হয়ে পরিকল্পিতভাবে কর্মকর্তা খায়রুল বাশার সুমনকে হত্যা করেছেন বলে তদন্তে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। এ ঘটনার তিন দিন পরও পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

এদিকে এ ঘটনায় দু’জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও দু’জনসহ চারজনকে আসামি করে শনিবার নিহতের ভাই খায়রুল এনাম বাদী হয়ে জেলার সদর দক্ষিণ মডেল থানায় মামলা করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মামলার দুই আসামি কুমিল্লা নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার মহিউদ্দিন (২২) ও রাফি (২০) কুমিল্লা ইপিজেডের সিং সাং সু নামে একটি চীনা কোম্পানির কর্মচারী ছিল। প্রতিষ্ঠানের স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়ানোয় সম্প্রতি তাদের চাকরিচ্যুত করা হয়। এজন্য তারা ওই কোম্পানির মানবসম্পদ কর্মকর্তা খায়রুল বাশার সুমনকে দায়ী করে এবং তার প্রতি ক্ষুব্ধ হয়।

গত শুক্রবার সুমন কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ইপিজেডের প্রধান গেটের অদূরে রোসা সুপার মার্কেটের সামনে পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত খায়রুল বাশার সুমন সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা ইউনিয়নের মান্দারি গ্রামের মতিন মাস্টারের ছেলে।

নিহতের ভাই ও মামলার বাদী খায়রুল এনাম জানান, ঘটনার তিন দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কাউকে ধরতে পারেনি। ঘটনাস্থলের আশপাশে সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে। এগুলো থেকে অজ্ঞাতনামাদের শনাক্ত করা যেতে পারে।

রোববার বিকেলে সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশীষ রায় সমকালকে জানান, আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের কয়েকটি টিম অভিযান চালাচ্ছে।

আর পড়তে পারেন