সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার বরুড়ায় শালিশ বৈঠকে হামলা চালিয়ে ৬ জনকে কুপিয়ে আহত

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
অক্টোবর ১২, ২০২০
news-image

স্টাফ রির্পোটারঃ

কুমিল্লার বরুড়ায় পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে ওড্ডায় শালিশ বৈঠকে হামলা চালিয়ে ৬ জনকে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ওড্ডা (দঃ) সর্দার বাড়ির মসজিদের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আরব আলী বাদী হয়ে বরুড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

থানা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চিতড্ডা ইউনিয়নের ওড্ডা সরর্দার বাড়ির আরব আলী সর্দারের পরিবারের সাথে একই বাড়ির আয়েত আলীর ছেলে মোতালেব মিয়া (২৩), আব্দুৃল কাদের মিয়া (৩১), সাহেব আলীর ছেলে ওসমান গণি (২৬), মোস্তফা মিয়া (৩০), মৃত-গনি সর্দারের ছেলে আয়েত আলী (৫০) ও সাহেব আলী (৪৮) গংদের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসতেছিলো।

এরই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদিনের বিরোধ নিস্পত্তির লক্ষ্যে ইউপি চেয়ারম্যানসহ এলাকার গন্যমান্যদের উপস্থিতিতে গত ১০ অক্টোবর সকালে সর্দার বাড়ির মসজিদের সামনে গ্রাম্য শালিশ বৈঠক বসে। বৈঠক শুরুর কিছুক্ষন পরে বিবাদীরা গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়েন। এতে পরিবেশ কিছু গোলাটে হয়ে পড়ে। পরে বিবাদীরা ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুকসহ এলাকার গণ্যমান্যরা উস্থিতে শালিশ বৈঠক উঠিয়ে দিতে আরব আলী, আমির হোসেন, কবির আহমেদ সর্দার (গ্রাম্য প্রধান), বসির সর্দার, রবিউল সর্দার, আবুল পন্ডিত ৬ জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কুমেক ও কুমিল্লা সদর হাসপাতালে রেফার করে।

এ বিষয়ে ভিক্টিম আরব আলী আজকের কুমিল্লাকে জানান, পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে শালিশ বৈঠকে বিবাদীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় ৬জন গুরুতর আহতসহ অন্তত ৮/১০ জন গন্যমান্যব্যাক্তিবর্গ সাধারণ আহত হয়। তিনি হামলাকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। তিনি আরো জানান আয়েত আলীর দুই ছেলে মোতালেব ও কাদের এলকায় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। এছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে অপহরনসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় তিনি ভিক্টিমদের চিকিৎসাপত্র ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ শেষে মামলা করার প্রস্তুতি নিয়েছেন।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত মোতালেব মিয়া গংদের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি।

এব্যাপারে বরুড়া থানা পুলিশের এসআই মেহেদী হাসান আজকের কুমিল্লাকে জানান, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ভিক্টিমের কাছ থেকে মামলা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুক আজকের কুমিল্লাকে জানান, তিনি শালিশ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। শালিশে অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

আর পড়তে পারেন