সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার ধর্মপুরে জমজমাট জুয়ার আসর: কিশোর-যুবক-দিনমজুর সর্বশান্ত হচ্ছে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৪, ২০২১
news-image

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লার ধর্মপুর, রেলস্টেশনসহ নগরীর বেশ কয়েকটি এলাকায় ক্যাসিনো- জূয়ার আসর বসছে। চলমান লকডাউনে এ ক্যাসিনো-জুয়ার আসর আরো প্রসারিত হয়েছে। এসব এলাকার কিশোর, স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা, দিনমজুর, অটোরিকসা চালক থেকে শুরু করে বয়স্ক লোকরাও এ জুয়ার আসরে নিজেদের জড়িয়ে ফেলেছেন। প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার জুয়ার আসর বসছে এসব এলাকায়। এখানে স্বল্প কিছু লোক লাভবান হলেও ক্ষতিগ্রস্ত অর্থাৎ লোকসানের  সম্মুখীন হচ্ছেন অনেকেই । স্থানীয়রা এটা নিয়ে ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহসও পাচ্ছে  না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সূত্র জানায়, ধর্মপুর এলাকায় আক্তার হোসেন শাকিল ও মোহসিন হাসান শামিম  এই দুইজন নাফিছা নুসরাত ভেরাইটি ষ্টোর দোকানে বসে মোবাইলের আইডির মাধ্যমে এ জুয়া পরিচালনা করে। ধর্মপুর রেলগেইটের সাথে সড়কের দক্ষিন পাশে পূর্ব ও পশ্চিমের টিন শেডের ঘরে চলে এ ক্যাসিনো-জুয়ার আসর।

লকডাউনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কোমলমতি শিক্ষার্থীরাও এ ভয়ংকয় জুয়ার আসরে  জড়িয়ে পড়েছে। এছাড়াও দিন মজুর, রিক্সা- অটোচালকরাও জড়িয়ে গিয়ে অনেকে সর্ব শান্ত হচ্ছে। জুয়ার আসর পরিচালনাকারিদের ভয়ে অনেকেই প্রকাশ্যে এর প্রতিবাদ করতে পারছে না।

স্থানীয় সূত্র জানায়,  তারা প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে বিগত ২/৩ বছর ধরে এ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। বর্তমানে আইপিএল খেলা চলার কারনে প্রতিদিন রাত ৮টার পর থেকে এ ঘরে চলে ক্যাসিনোর  রমরমা ব্যবসা ।

এছাড়াও খোজ নিয়ে জানা যায় কুমিল্লা শহরের জায়গায় গড়ে উঠেছে এ অবৈধ ক্যাসিনোর ব্যবসা। নগরীর চর্থা, ইপিজেড রোড, চকবাজার, কুচাইতলী, টমছমব্রিজ এলাকায় চলছে এ জুয়ার আসর।

বিশিষ্টজনরা মনে করেন প্রশাসন অচিরে এ ব্যবসা বন্ধের ব্যাপারে কঠোর না হলে ধ্বংস হয়ে যাবে কুমিল্লার ঐতিহ্য ও যুবসমাজ। প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার লেনদেন হয় এ জুয়ার আসরগুলোতে।

 

আর পড়তে পারেন