সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লার চান্দিনায় ফাগুনের স্নিগ্ধ বাতাসে সুবাস ছড়াচ্ছে স্বর্ণালি আমের মুকুল

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০
news-image

 

শরীফুল ইসলাম,চান্দিনাঃ

শীত বুড়ির বিদায়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ। বাংলা পঞ্জিকায় সদ্যই অভিষিক্ত ঋতুরাজ বসন্ত। আগুনঝরা ফাগুনের আবাহনে ফুটেছে শিমুল-পলাশ। গ্রামের মেঠোপথে কখনও কখনও দূর সীমানা থেকে কানে ভেসে আসছে কোকিলের কুহু কুহু কলতান।
এরই মধ্যে বসন্তের আগুনরাঙা গাঁদা ফুলের সঙ্গে সৌরভ ছড়াচ্ছে আমের মুকুলও। আমের মুকুলের মিষ্টি ঘ্রাণে এখনই মৌ মৌ করতে শুরু করেছে চারিদিক। মুকুলের সেই সুমিষ্ট সুবাস আন্দোলিত করে তুলছে মানুষের মন।

ঋতুবৈচিত্র্যে কুমিল্লার চান্দিনায় সবুজ প্রকৃতির আমেজ এখন অনেকটা এমনই আবেগের হয়ে উঠেছে। বসন্তের ফাগুন আর আমের মুকুল যেন একই সুতোয় গাঁথা। বছরের নির্দিষ্ট এই সময়জুড়ে তাই চাষি তো বটেই, কমবেশি সব শ্রেণির মানুষেরও দৃষ্টি থাকে সবুজ পাতায় ঢাকা আমগাছের শাখা-প্রশাখায়। সদ্য মুকুল ফোটার এমন দৃশ্য এখন ইট-পাথরের গড়া নগর থেকে শুরু করে বিস্তৃত চান্দিনার গ্রামীণ জনপদেও।

আমের মাস বলতে জ্যৈষ্ঠ মাসকে বোঝালেও কুমিলার চান্দিনা অঞ্চলে সাধারণত বৈশাখের মাঝামাঝি সময়ে এখানকার আম হাট-বাজারে উঠে থাকে। সেই হিসেবে এবারে মাঘ মাসের শুরু থেকেই এখানকার আমগাছগুলোতে মুকুলের সমারোহ বলে দিচ্ছে ব্যাপক ফলনের ইতিবাচক লক্ষণ। ফাল্গুন-চৈত্রে এসব মুকুল শেষ পর্যন্ত গাছে টিকে থাকলে চান্দিনায় আমের বেশ ভালো ফলন মিলবে। সরেজমিনে ঘুড়ে দেখা যায় চান্দিনার উপজেলার এতবারপুর, জোয়াগ, গলাই, নবাবপুর, বরকইট, শুহিল পুর, বাড়েরা, মাইজখার, জয়দেবপুর, বাতাঘাসী, বরকরই সহ অন্যান্য ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ল্যাংড়া, ফজলি, হিমসাগর ও আশ্বিনিজাতের আমগাছগুলো মুকুলে ছেয়ে গেছে। হলুদ বর্ণের মুকুল সূর্যের সোনালী আলোয় যেনো অপরূপ রঙ ছড়াচ্ছে।

অনুকূল আবহাওয়া থাকায় এবারে চান্দিনার বিভিন্ন এলাকায় কৃষি নির্ভর গ্রামগুলো ধান, পাট, সরিষাসহ নানা প্রকারের ফল ও সবজি উৎপাদনে সমৃদ্ধ হলেও মধুমাসের ফল আম উৎপাদনে ততোটা এগিয়ে নেই। কারণ সমগ্র উপজেলা জুড়ে কোন আম বাগান নেই। তবে গ্রামগঞ্জের প্রতিটি বাড়িতেই কমবেশি আমগাছ রয়েছে। আবার পৌরসভার পরিবেশ বড় বড় অট্টালিকায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়লেও অনেক বাড়িতে ছোটবড় আম গাছের দৃশ্য দেখা যায়। অনেকের বাড়ির ছাদেও উন্নতজাতের আমগাছের দেখা মেলে। চান্দিনা পৌরসভায় ও বিভিন্ন গ্রামের বাড়িতে থাকা আমগাছগুলোতে অন্যান্যবারের তুলনায় এবারে বিপুল পরিমাণ মুকুল এসেছে। যেসব আমগাছে গত কয়েক বছরেও মুকুলের দেখা মেলেনি সেসব গাছের ডাল-পালা, পাতা মুকুলে ঢাকা পড়েছে। মুকুলের সমারোহ দেখে বাড়ির লোকদের মনে-প্রাণে আনন্দ বইছে। অনেকেই মুকুল রক্ষার জন্য কৃষি অফিসে গিয়ে কর্মকর্তাদের পরামর্শ নিচ্ছেন। কেউ কেউ গাছের যত্নে বেশ মনোযোগী উঠেছেন। আমগাছগুলোতে মুকুলের ব্যাপক সমারোহ দেখে উপজেলার উদ্ভিদবিদরা বলছেন এবারে চান্দিনায় আমের ব্যাপক ফলনের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।

আর পড়তে পারেন