সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুমিল্লাতে নার্স থেকে হয়ে গেলেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
এপ্রিল ২৯, ২০১৯
news-image

অনলাইন ডেস্কঃ
ওয়ার্ডে রোগীদের সেবা না দিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বর্হিবিভাগে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হিসেবে রোগী দেখছেন একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স। কর্তব্যরত শিশু কনসালটেন্ট ডাক্তার এর রেজিষ্টার সমন্বয়কারীর দায়িত্ব নিয়ে তিনি হয়ে গেলেন একজন শিশু ও নবজাতক বিশেষজ্ঞ ডাক্তার। এমন চিত্র দেখা গেছে কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

সরেজমিন দেখা গেছে, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স মো. হারুন অর রশিদ খন্দকার প্রতিনিয়ত বর্হিবিভাগে বসে শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের নাম ভাঙিয়ে চিকিৎসা প্রদান করে আসছেন। গ্রাম থেকে ছুটে আসা সাধারণ রোগীরা তার কাছ থেকে চিকিৎসা সেবার নামে অপচিকিৎসা পেয়ে প্রতারিত হচ্ছেন। এছাড়াও সাধারণ রোগীদের হয়রানি ও খারাপ আচরণ করার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন ডাক্তার জানান, সিনিয়র স্টাফ নার্স হারুন অর রশিদ খন্দকার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওয়ার্ডে রোগীদের সেবা করার কথা থাকলেও তিনি প্রভাব দেখিয়ে বর্হিবিভাগে বসে রোগী দেখছেন। চিকিৎসা প্রদানের নামে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছেন।

এ ব্যাপারে কথিত ডাক্তার হারুন অর রশিদ খন্দকার জানান, আমাকে শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হাসিনা সুলতানার রেজিষ্টার সমন্বয় করার দায়িত্ব দিয়েছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তৃপক্ষ। রোগী দেখার বৈধতা আমার না থাকলেও ডাক্তার সংকটের কারণে বর্হিবিভাগে বসে আমি রোগী দেখি।

এদিকে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার কামরুল হাসান সোহেল জানান, হারুন অর রশিদ খন্দকার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স। আমরা তাকে শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হাসিনা সুলতানার রেজিষ্টার সমন্বয় করার দায়িত্ব দিয়েছি, রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য নয়। চিকিৎসা প্রদানের বিষয়টি আমি এইমাত্র জানতে পেরেছি। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

আর পড়তে পারেন