রবিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুবি শিক্ষকদের বিরোধ: সিন্ডিকেটে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ডিসেম্বর ১১, ২০২০
news-image

 

কুবি প্রতিনিধিঃ

আসন্ন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন-২০২১ নিয়ে শিক্ষকদের দুই পক্ষের বিরোধ নিরসনে অনুষ্ঠিত জরুরী সিন্ডিকেট সভায় দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি গঠিত নির্বাচন কমিশন পুর্নগঠন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো: আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ট্রেজারার সূত্রে জানা যায়, যেহেতু সব পক্ষ নির্বাচন চায় সেজন্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ট্রেজারারের তত্তাবধানে প্রধান নির্বচান কমিশনার হিসেবে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মুহ. আমিনুল ইসলাম আকন্দ, নির্বাচন কমিশনার হিসেবে পূর্বে গঠিত শিক্ষক সমিতির সভাপতি পক্ষের কমিশন প্রধান রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. এ. কে. এম. রায়হান উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদকের পক্ষের গঠিত কমিশনের প্রধান এবং নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আইনুল হকে সমন্বয় করে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়। পুর্নগঠিত এ কমিশন পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী ১৩ ডিসেম্বরই নির্বাচন করবে। এসময় ট্রেজারার আরো জানান, আওয়ামীপন্থি নীল দলের দুই পক্ষ এবং বিএনপিপন্থি সাদা দল সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানিয়ে পুর্নগঠিত কমিশনের অধীনে নির্বাচনে যেতে সম্মত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ৩০ নভেম্বর শিক্ষক সমিতির সাধারণ সভায় ১৩ ডিসেম্বর নির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়। তবে শিক্ষক সমিতির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশন গঠনের বাধ্যবাধকতা থাকায় একই দিন নির্বাচন কমিশন গঠনে কার্যনির্বাহী সভা ডাকা হলেও তাতে সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. স্বপন চন্দ্র মজুমদারের অনুসারীরা অংশ নেয়নি। পরে সভাপতি মো: রশিদুল ইসলাম শেখপন্থীরা নির্বাচন কমিশন গঠন করে। পরে তিন ডিসেম্বর পাল্টা কমিশন গঠন করেন সাধারণ সম্পাদকপন্থীরা। এছাড়া ৬ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু পরিষদের কাজী ওমর- জিয়া কমিটিকে মেয়াদর্ত্তীণ দাবি করে তাদের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে ড. জ.এম.মনিরুজ্জামান কে আহ্বায়ক এবং ড. মো: মোকাদ্দেস-উল-ইসলামকে সদস্য সচিব করে আহ্বায়ক কমিটি করে শিক্ষকদের একাংশ। পরে ৮ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু পরিষদের দুইপক্ষই নীলদল আখ্যা দিয়ে পাল্টাপাল্টি প্যানেল ঘোষণা করে।

আর পড়তে পারেন