সোমবার, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুবিতে বঙ্গবন্ধু পরিষদের একাংশের কমিটির প্রতিবাদ জানিয়েছে আরেকাংশ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ৬, ২০২১
news-image

 

কুবি প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে(কুবি) মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষকদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু পরিষদের একাংশের নতুন কমিটি গঠনের প্রতিবাদ জানিয়েছে অপর একটি অংশ।

বুধবার একাংশের আহ্বায়ক ড. জি এম মনিরুজ্জামান এবং সদস্য সচিব ড. মোঃ মোকাদ্দেস উল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা এ প্রতিবাদ জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ ২০১০ সাল থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে চেতনার চর্চা করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধু পরিষদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক প্রতিবছরই নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে ২০১৮ সালে গঠিত বঙ্গবন্ধু পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১৯ ও ২০২০ সালের নতুন কমিটি গঠন করতে তালবাহানা করে এবং ক্ষমতা কুক্ষিগত করে তিন বছর অতিবাহিত করে বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। ফলে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সদস্যবৃন্দ এই স্বেচ্ছাচারী ও অবৈধ কমিটির দুষ্ট চক্র থেকে পরিত্রান পাওয়ার জন্য গত ৪ ডিসেম্বর ২০২০ দুই-তৃতীয়াংশ শিক্ষকের মতামতের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ গঠনের লক্ষ্যে অধ্যাপক ড. জি এম মনিরুজ্জামানকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে। বঙ্গবন্ধু পরিষদের গঠনতন্ত্র অনুচ্ছেদ-৮ মোতাবেক উপর্যুক্ত কমিটি গঠিত হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ৫ জানুয়ারি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের একটি ক্ষুদ্র অংশ দুই-তৃতীয়াংশ শিক্ষকের মতামতকে উপেক্ষা ও অবজ্ঞা করে নিজেদের হীন স্বার্থ চরিতার্থ, বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যাহত ও বিবেদের রাজনীতি করার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু পরিষদের নতুন কমিটি ঘোষণা করে। যা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থী। আমরা এহেন অযৌক্তিক, অবৈধ ও অনিয়মতান্ত্রিক কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

উল্লেখ্য, গত মাসে অনুষ্ঠিত শিক্ষক সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি হয়। সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ৭ ডিসেম্বর শিক্ষকদের একাংশ তৎকালীন কমিটিকে মেয়াদোত্তীর্ণ দাবি করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের উপর অনাস্থা জানিয়ে ড. জি. এম. মনিরুজ্জামানকে আহ্বায়ক ও ড. মোঃ মোকাদ্দেস উল ইসলামকে সদস্য সচিব করে নতুন কমিটি গঠন করে। পরে দুটি পক্ষই নিজেদেরকে বঙ্গবন্ধু পরিষদ দাবি করে আলাদা আলাদা নীল দলের প্যানেল দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়। এরপর ৫ জানুয়ারি একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে সভাপতি এবং অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ নাসির হুসেইনকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করে শিক্ষকদের একাংশ।

আর পড়তে পারেন