শনিবার, ১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কি হতে পারে আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্সের ম্যাচের ফলাফল

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ৩০, ২০১৮
news-image

স্পোর্টস রিপোর্টারঃ
অপ্রত্যাশিত পারফরম্যান্স, দলীয় অর্ন্তকোন্দলে জর্জরিত আর্জেন্টিনা প্রায় অসম্ভবকে সম্ভব করেই দ্বিতীয় রাউন্ডের নক আউট পর্বে পৌছেছে। অপরদিকে সফলতা দেখিয়ে দ্বিতীয় পর্বে জিদানের অনুসারীরা। তাই সে হিসেবে ফ্রান্সই আজকের ম্যাচে ফেবারিট । কিন্তু দলটি যখন আর্জেন্টিনা, যে দলে বিশ্বের সেরা নক্ষত্র রয়েছে সে দলের পক্ষে আবারো অসম্ভবকে সম্ভব করা কঠিন কিছু নয়। মেসি জ্বলে উঠলে বাকি সব পুড়ে ছারখার হয়ে যাবে। সেটা ফ্রান্স ভালভাবে জানে। তাই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে ধারণা করছে ফুটবলবোদ্ধারা।

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের সাথে ড্র। দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে হার। এরপর আর্জেন্টিনার বিদায় দেখে ফেলেছিল অনেকেই। সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। মেসি নিজে খানিকটা হলেও ফিরে পেয়েছেন নিজেকে, আর্জেন্টিনাও ছন্দ খুঁজে পেয়েছে। নাইজেরিয়াকে হারিয়ে কোনোক্রমে দ্বিতীয় পর্বে পা রেখেছে তারা। এই দ্বিতীয় পর্বে আসার পথের জয়টাই এখন আত্মবিশ্বাসী করছে আর্জেন্টিনাকে। এখনও পর্যন্ত মাঠে নামতে না পারা আর্জেন্টিনার দুই তারকা ফাজিও ও লো সেলসো বলছিলেন, এই জয়ে তাদের আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে। ফ্রান্সকে নিয়ে তারা খুবই সতর্ক। তবে তারা আত্মবিশ্বাসী যে, আর্জেন্টিনা জয়ের ধারাটা ধরে রাখতে পারবে।

মেসি সাংবাদিক সম্মেলনে আজকের খেলাটিকে ফাইনাল হিসেবে ধরে নিয়েছেন।

আজকের ম্যাচে হিগুয়েন বাদ পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেই জায়গায় খেলবেন পাভোন। ফলে মেসি ফলস নাইন পজিশনে খেলবেন। ফলে মেসিকে সামলাতে গিয়ে ডি মারিয়া-পাভোন কিছুটা ছাড় পাবে। আর সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে মেসিবাহিনী সফল হবে। এটাই আর্জেন্টাইনদের মূল পরিকল্পনা। আরো একটি পরিকল্পনা রয়েছে সেটি হল খেলার অবস্থা বুঝে অ্যাগুয়েরো ও দিবালাকে মাঠে নামানো হতে পারে। আর এটাই ফ্রান্সের বধের মূলমন্ত্র হতে পারে। ফ্যান্টাস্টিক ফাইভকে সামলানো যে কোন দলের জন্য দুঃসাধ্য বিষয়। মাঝমাঠে যথারীতি থাকবেন এভার বানেগা, মাসচেরানো। প্রয়োজনে লো সেলসো ও বিগলিয়া তো রয়েছেনই।  রক্ষণভাগে তাগলিয়াফিকো, রোহো, ওটামেন্ডি তো রয়েছেন। তবে আর্জেন্টিনার ব্যাকপাস প্রবণতা হিতে বিপরীত হতে পারে।

অপরদিকে ফ্রান্সের রক্ষণভাগ দারুণ। উমতিতি ও ভারানে পরীক্ষিত সৈনিক। মূল পরীক্ষাটা তাদেরই দিতে হবে। আক্রমণভাগে রয়েছেন কাইলন এমবাপ্পে, গ্রিজম্যান, ডেম্বেলের মত খেলোয়াড়। এদের দিনে বিপক্ষের রক্ষণভাগ চুড়মাড় করা কোন ব্যাপারই না।

দুদলের লড়াইয়েও আর্জেন্টিনা বেশ এগিয়ে রয়েছে। তবে বর্তমান ফর্মের বিচারে ফ্রান্স এগিয়ে । তবে খেলার মূল তফাৎ সৃষ্টি করতে পারে লিওনেল মেসি। এখন দেখার বিষয় কিভাবে মেসিকে আটকানোর ছক কষে ফ্রান্সরা।

আর পড়তে পারেন