রবিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কবিতা: অস্তিত্ব বারবার মিলিয়ে যায়

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৩১, ২০২১
news-image

সাইদুল হাসান:

নদীর তটে বসে আনমনে চেয়ে রই হিল্লোলের
পানে। কত সুন্দর! সুশীল সারিবদ্ধভাবে ওরা
ছু্টে আসে! কাউকে পিছনে ফেলে সামনে আগা-
বার কোনো তাড়া নেই। অলখের বাঁধ ভাঙে।

পানকৌড়ির দল মাছের নেশায় অগভীর জলে
দেয় ডুব, বালিহাঁসেরা ভাসে উর্মিমালার তালে
তালে। নদীর উপর দিয়ে স্বাধীন বেশে বিহগেরা উড়ছে।
মৃদু বাতাসে নদীতীরে কাশবন দুলছে।

মাঝিরা পাল তোলে বৈঠা হাতে ভাটিয়ালি গানে
সুর জাগায়। ডিঙি নৌকা দিয়ে মৎস্যজীবীর দল
ছুটে নির্ঝরিণীর বুকে। নদীতে ফেলে জাল। ঘন
আঁধার যখন কাড়ে সূর্যের আলো, তখনি ফিরে।

পাঞ্জেরির দিকনির্দেশনাকে পুঁজি করে ছুটে চলছে
জাহাজ। ঢেউ এসে ধাক্কা খায় জাহাজের গায়ে।
ছলাৎ ছলাৎ আওয়াজ শ্রবণে আসে। ধাক্কার
বিপরীতে হারিয়ে আবার নতুন উদ্যমে সৃষ্টি হয়।

দৃষ্টির অগোচর হতে বয়ে নদীর তটে লাফিয়ে
পড়ে। ভেঙে তছনছ হয়ে যায়। হাজারো ত্যাগ ও
তিতিক্ষা বৃথাই। পুনর্বার পুরনো জোয়ার উঠে
না। কোথায় যেনো অস্তিত্ব বারবার মিলিয়ে যায়!

আর পড়তে পারেন