মঙ্গলবার, ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

এরপর বলা হবে, রোজিনাই নির্যাতনকারী !

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ১৮, ২০২১
news-image

 

ডেস্ক রিপোর্ট:

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আজ দাবি করেছেন, ‘রোজিনা ইসলামকে কোনো নির্যাতন করা হয়নি।’ একনেকের সভা থেকে বেরিয়ে গণমাধ্যমের সামনে তিনি একথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘আমি ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলাম না। ঘটনা সম্পর্কে আমি টেলিফোনে শুনেছি যে, রোজিনাই কর্মকর্তাদের সাথে ধস্তাধস্তি করেছে। রোজিনা তাদের কামড়ে দেয়ার চেষ্টা করেছিল।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যে জাতি হতবাক, বিস্মিত। স্বাস্থ্যমন্ত্রী অবশ্য বিভিন্ন সময়ে নানা চমকপ্রদ তথ্য আবিষ্কারের জন্য আলোচিত।

উহানে করোনা যখন ছড়িয়ে পরলো, তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বললেন, ‘বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ হবে না। তারপরও আমরা প্রস্তুত।’ এরপর দেখা গেল বাংলাদেশের প্রস্তুতি নেই।

পিপিই কে পিপিপি বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরেক বিস্ময় সৃষ্টি করেছিলেন। প্রতারক শাহেদকে যখন র্যাব গ্রেফতার করলো, তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বললেন ‘আমি তাকে চিনি না, চুক্তির ব্যাপারে কিছুই জানি না।’ এরপর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে শাহেদের চুক্তির ছবি প্রকাশিত হলো, তাতে দেখা গেল স্বাস্থ্যমন্ত্রী উপস্থিত।

দেশে যখন করোনার প্রকোপ কমলো, তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বললেন, ‘আমাদের সাফল্যের জন্যই করোনা বিদায় নিচ্ছে। টিকা ছাড়াই আমরা করোনা মুক্ত হবো।’

এরপর যখন করোনা বাড়লো তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বললেন, ‘আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানলাম না, কক্সবাজার, কুয়াকাটায় বেড়াতে গেলাম, তাই করোনা আবার বাড়লো।’

এরকম বহু বক্তব্যের জন্য তিনি আলোচিত। তিনি ঘটনাস্থলে না থেকেও রোজিনাকেই দোষী বানিয়ে দিলেন। ৫ ঘন্টা একজন সংবাদকর্মীকে হেনস্থার পক্ষে সাফাই গাইলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অভিভাবক। তিনি যে অবস্থান নিলেন, সেটিই মন্ত্রণালয়ের অবস্থান। তাহলে, এরপর হয়তো বলা হবে, রোজিনাই আক্রমণকারী। রোজিনাই মন্ত্রণালয়ে গিয়ে দস্যুবৃত্তি করেছে। এরকম অভিযোগ যদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আগামীতে করে, তাহলে অবাক হবার কিছুই থাকবে না। কারণ স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ সেরকম একটি ইঙ্গিতই গণমাধ্যমের সামনে দিলেন।

সূত্র: বাংলা ইনসাইডার।

আর পড়তে পারেন