শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

এবার আইসিসি’র টুইটার পোলের ভোটে কোহলিকে হারালেন ইমরান খান

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জানুয়ারি ১৪, ২০২১
news-image

 

স্পোর্টস ডেস্কঃ

দ্বিপক্ষীয় ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট দ্বৈরথ বন্ধ রয়েছে প্রায় এক যুগ ধরে। তবে সর্বশেষ ঘটনায় মুখর দুই দেশের ক্রিকেট সমর্থকরা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা- আইসিসির এক ভোটাভুটিতে ভারতীয় সুপার স্টার বিরাট কোহলিকে হারালেন পাকিস্তানের ক্রিকেট লিজেন্ড ইমরান খান। আর এ ভোটাভুটি ছুঁয়ে গেছে প্রতিবেশী দুই দেশের ক্রিকেট সমর্থকদেরও। এমনকি কোহলিকে টুইটার পোল-এ হারানোয় পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেছেন দেশটির এক মন্ত্রী।

মঙ্গলবার (১৩ জানুয়ারি) আইসিসির টুইটার অ্যাকাউন্টে একটা পোল দেয়া হয়। আইসিসি চারজন খেলোয়াড়ের নাম দিয়ে টুইট করে- কাকে সেরা মনে করেন? তুলনাটা ছিল চার অধিনায়কের মধ্যে। আইসিসি এখানে হিসাবে নিয়েছে এমন চারজনকে, অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর টেস্টে যাদের পারফরম্যান্স আরও ভালো হয়েছে।

ইমরান খান, বিরাট কোহলির সঙ্গে ভোটাভুটিতে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স ও অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ম্যাগ ল্যানিং। পোলের শুরুতে এগিয়ে যান ইমরান খান। শেষ দিকে ভারতীয় সমর্থকরা ‘ভোট ফর বিরাট’ হ্যাশট্যাগে কোহলির পক্ষে ভোট চাইতে থাকে। ভারতীয় সমর্থক তাজিন্দর পাল সিং টুইটারে লিখেন- ‘ইমরান-কোহলি ৪৭%-এ। আর মাত্র ১০ মিনিট বাকি, নিজের সেরা চেষ্টাটা কর, বিরাটকে ভোট দাও। আরেক সমর্থক রবি গান্ধীর টুইট ছিল, ‘দেশের ইজ্জতের মামলা। ৪০ মিনিটে ৪০ হাজার ভোট চাই। কিছু করা যায়? জয় হিন্দ!’ দ্রুত ভোট বেড়ে যায় কোহলির পক্ষে। এসময় মনে হচ্ছিল বিরাট কোহলিই জিতেছেন। কিন্তু চূড়ান্ত গণনা শেষে কোহলিকে পেছনে ফেলেন ইমরান খান। আইসিসি টুইটার পোলে মোট ভোট পড়ে ৬ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪৬টি। পোলে ইমরান ৪৭.৩%, কোহলি ৪৬.২%, ডি ভিলিয়ার্স ৬.০% ও ল্যানিং পান ০.৫% ভোট। আর ফল ঘোষণা শেষে প্রতিক্রিয়া দেখান পাকিস্তানি সমর্থকরা। মালিহা হাশমি নামের এক সমর্থক লিখেন- নিশ্চিত, আগামী ৩০ মিনিটে টপ টুইটার ট্রেন্ড হচ্ছে ‘পাকিস্তান শকস ইন্ডিয়া’।

পাকিস্তানকে ১৯৯২ বিশ্বকাপ জিতিয়ে ইমরান খান ক্রিকেট ইতিহাসে অমর হয়ে আছেন। অধিনায়কত্ব পাওয়ার আগে অলরাউন্ডার ইমরান খানের রানের গড় ছিল ২৫.৪৩, বল হাতে ২৫.৫৩। অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর পাকিস্তান কিংবদন্তির দুই দিকেই উন্নতি- ব্যাট হাতে গড় ৫২.৩৪, এবং বল হাতে ২০.২৬। অন্যদিকে অধিনায়ক হওয়ার আগে ব্যাট হাতে বিরাট কোহলির রানের গড় ছিল ৫১.২৯ । অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর তা পৌঁছে ৭৩.৮৮তে।

আর পড়তে পারেন