বুধবার, ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আর্ত মানবতার সেবায় লাকসামে ভিক্টোরি অফ হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৩০, ২০১৮
news-image

 

সেলিম সজীবঃ

মানুষ মানুষের জন্য, আর মানবতার সেবাই পরম ধর্ম। এমন স্লোগান নিয়ে আজ সারা বাংলাদেশে কিছু কিছু সমাজসেবী তরুণ সমাজ এগিয়ে এসেছে । তাদের দেখে অনেকে আজ এই সেচ্ছাসেবী কাজে আগ্রহী হচ্ছে। এমন একটি সংগঠন লাকসামে “ভিক্টোরি অফ হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন”।

খুব সামান্য কিছু তরুণ যুবক- যুবতী মিলে ফেসবুকে আলোচনা থেকে শুরু করে। আস্তে আস্তে তাদের আগ্রহ বাড়তে থাকে এবং ৫০০ সদস্য বিশিষ্ট একটা সংগঠন দাড় করায় তারা। তাদের মুল লক্ষ্য হচ্ছে সকল মানুষের মাঝে সমান ভাবে ভালবাসা বণ্টন করা এবং অসহায়, দুঃস্থ ও পথশিশুদের মুখে আনন্দের প্রকৃত হাসি এনে দেওয়া। সেই সুবাদে তারা তাদের সংগঠনের সদস্যদের মাসিক চাঁদা এবং কিছু সেচ্ছাসেবী মনা মানুষের সহযোগিতা ও সাহায্যে লাকসামে অসহায়, দুঃস্থ, এতিম ও পথশিশুদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করেন ।

যাত্রা পথে তাদের কাজগুলো ব্যাপক প্রশংসিত ৭০ জন ছিন্নমূল শিশুদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরণ, বন্যকবলিত সিরাজগঞ্জ ৩০০ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরণ, রক্তদাতা সংখ্যা ১২০০, ৩০০০ ব্যক্তির রক্তের গ্রুপ নির্নয়, ১০০ পথ শিশু নিয়ে জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন, ৬ টি ব্লাড গ্রুপ ক্যাম্প।

“ভিক্টরি অফ হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন”।সংগঠনের সংগঠক ফয়সাল হোসেন বাপ্পি বলেন , আমাদের সংগঠনের প্রধান কাজ রক্তদান, আমাদের সংগঠন থেকে প্রতিমাসে দুইশত ব্যাগ দেই। আমরা দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য সালেহপুর একটা স্কুল খুলছি অনেক আগে থেকেই স্বপ্ন দেখতাম মানুষের পাশে দাঁড়াবো, তাদের সাহায্য করব কিন্তু কখনও কাউকে পেতাম না। যাদের কথা বিশেষ ভাবে বলতে হয় মুজাহিদুল ইসলাম সাকিব আর অনিক খানকে নিয়ে আস্তে আস্তে যখন আমি ফেসবুকে প্রচারণা শুরু করলাম তখন অনেকের সাড়া পেলাম। সবাই আমাকে উৎসাহিত করতে লাগলো।

সেই উৎসাহ থেকে শুরু তার পর আজকে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হওয়ায় আমি খুবই আনন্দিত। আজ আমাদের পথচলা প্রথম বর্ষপূর্তির নানান আয়োজনে সাজিয়েছি র‍্যালী এবং লাকসাম ইফতার প্রোগ্রাম এর আয়োজনে। তিনি বলেন, আমাদের সহকর্মীরা না থাকলে কখনই বাস্তবায়ন হত না। আমি আমার “ভিক্টরি অফ হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন” এর সকল সদস্য কে অনেক ধন্যবাদ জানাই। আশা করি আগামীতে আমরা অনেক দূর এগিয়ে যাব এবং লাকসাম গ্রাম-গঞ্জে গিয়ে অসহায়, দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াবে আমাদের “ভিক্টরি অফ হিউম্যানিটি অর্গানাইজেশন”।

আর পড়তে পারেন