রবিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অসুস্থ শিক্ষককে নিজের গাড়ীতে হাসপাতালে নিলেন লালমাই থানার ওসি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০
news-image

 

রকিবুল হাসান রকি :

এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়া শিক্ষককে নিজের গাড়ীতে করে হাসপাতালে নিলেন লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব।গত সোমবার  বেলা ১১টায় অসুস্থ ওই শিক্ষককে তিনি বাগমারা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে পুলিশের গাড়ীতে করে বাগমারা ২০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এ খবরে শিক্ষকসহ সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

জানা যায়, এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন সোমবার বাগমারা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ২নং কক্ষে পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করছিলেন উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের শাসনপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো: শাহাজাহান। ডিউটি করা কালীন বেলা অনুমান ১১টায় তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পরীক্ষার কক্ষের মেঝেতে লুটিয়ে পড়েন। খবর পেয়ে কেন্দ্র সচিব বাগমারা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনির আহমেদ ওই কক্ষে যান এবং অসুস্থ শিক্ষককে হাসপাতালে নিতে একটি অটো রিকশা ভাড়ায় আনতে একাধিক জনের সাথে ফোনে যোগাযোগ করেন। এমন সময়ে কেন্দ্রে উপস্থিত লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব নিজেই পুলিশের সরকারি গাড়ীতে উঠিয়ে ওই শিক্ষককে বাগমারা ২০ হাসপাতালে নেন এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

গতকাল বিকালে বাগমারা ২০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: জয়া শীষ রায় ওই শিক্ষককে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। তিনি বর্তমানে কুমেক হাসপাতালের ৫২১নং কক্ষে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তিনি একই সাথে রক্ত শূন্যতা, হৃদরোগ ও ডায়াবেটিকে আক্রান্ত। তাকে কমপক্ষে ৪ পাউন্ড রক্ত (এবি পজেটিভ) দিতে হবে।

শাসনপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মোস্তফা জামাল পুলিশের এই মানবিক কাজের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু, এটা আবারও প্রমান হলো।

বাগমারা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সচিব মনির আহমেদ বলেন, লালমাই থানার ওসি সাহেব তাৎক্ষনিক নিজের গাড়ীতে করে অসুস্থ শিক্ষককে হাসপাতালে না নিলে হয়ত খারাপ কিছু হয়ে যেতো।

লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, পুলিশের চাকরি হওয়ার আগে আমিও শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত ছিলাম। শিক্ষকরা সমাজের আইডল। পরীক্ষার কক্ষের মেঝেতে লুটিয়ে পড়া অসুস্থ শিক্ষক কে দ্রুততম সময়ে হাসপাতালে পৌছিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে আমি আমার কর্তব্য পালন করেছি।

উল্লেখ্য শিক্ষক শাহাজাহান ২০১৪ সালের জুনে শাসনপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তার বাড়ী ময়মনসসিং জেলার গৌরিপুর উপজেলার কুমড়ি গ্রামে। তিনি একই ইউনিয়নের দরবেশপাড়া বাজার সংলগ্ন একটি ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে ৬ বছর ধরে বসবাস করছেন।

আর পড়তে পারেন