শুক্রবার, ১৫ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অনেকে যারা বিকাশ ব্যবহার করেন, তাদের জন্য সতর্কতামূলক!

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৬

জিনাত জোয়ার্দার রিপা: একটু আগে এক লোক আমার বিকাশ নাম্বারে ফোন দিয়ে বলে তার ৪,৭৫০ টাকা আমার নাম্বারে ঢুকছে। আমি যেন তার টাকা ফেরত দেই। গতকাল আমার নাম্বারে ৩,১১০ টাকা আসছে, এটা তারই নাম্বার থেকে আসছে এবং আজ তার কর্মচারী ভুল করে বাকিটা পাঠাইছে।

BG_973316488

আমি বললাম যদি সত্যিই আসে আমি পাঠিইয়ে দেব। কিছুক্ষণ পর আসলেই একটা মেসেজ আসলো যে ক্যাশ ইন ৪,৭৫০ টাকা। লোকটা ফোনের পর ফোন দিয়ে যাচ্ছে। আমি বললাম দেখেন, বিকাশে অনেক কিছু হচ্ছে। মেসেজ আসছে ঠিকই কিন্তু শিওর না হয়ে আমি এক টাকাও পাঠাব না।

লোকটা আধা ঘন্টাও অপেক্ষা করতে রাজি না। আমার সন্দেহ তখন নিশ্চিত। না হলে আধা ঘন্টা কেন অপেক্ষা করবে না! মেইন ব্যালান্স চেক করে দেখি, আমার সন্দেহই সঠিক। আমি দিলাম ব্যাটারে ফোন। দিয়া বললাম, এইসব ফ্রডগিরি বাদ দেন। ব্যাটা বলে, আপা এইটা বলার জন্যই ফোন দিসিলাম, যে আমার ভুল হইছে। কইলাম, চালাকি বাদ দেন।

ব্যাপারটা এখানেই নিষ্পত্তি না। মজার ব্যাপার তার যে দোসর সে একটু পর একটা নাম্বার থেকে ফোন করে রাশভারী কণ্ঠে বলে, ‘স্লামালাইকুম। আমি বিকাশ কাস্টমার কেয়ার থেকে বলছি…’ আমি হাসতে হাসতে বললাম, ভাই, একটু আগে আপনার সাথের জন ধরা খাইছে। হিহিহি… আর এইটা বিকাশের কাস্টমার কেয়ার নাম্বার না। ব্যাটা ছাগল!-বলে লাইন কেটে দিসি। আরো দুইবার ফোন দিল। ধরি নাই।

এখন বলি মেসেজ যেটা আসছে, ওইটা Bkash না, Bkesh.

যেই দুইটা নাম্বার থেকে ফোন আসছে দুইটাই বাংলালিঙ্ক নাম্বার। ০১৯৫৩৭৫৩৯৪৯ এবং ০১৯৭১৯১৬২৪৭। আর বিকাশের কেউ এইটার সাথে জড়িত না থাকলে আগের দিন আমার নাম্বারে কত টাকা ঢুকছে তা ঠিকঠাক বলা অসম্ভব। তাই, সাধু সাবধান।
পেজবুক থেকে নেওয়া

আর পড়তে পারেন