সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অনিশ্চিত ভবিষ্যতে শিশু রিপন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ১১, ২০১৭
news-image

ইমতিয়াজ আহমেদ জিতুঃ
শিশুটির নাম রিপন। বয়স ৭/৮ বছর হবে। মা-বাবা কেউ নাই। এখন একমাত্র অবলম্বন বৃদ্ধ দাদী । নগরীর বিভিন্ন দোকানে দাদীকে নিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবন অতিবাহিত করছেন শিশুটি।
এই বয়সে মা-বাবার আদর ¯েœহে জীবন চলার কথা থাকলেও এই শিশুটির কপালে তা জুটেনি। আর্থিক অনটনের কবলে পড়ে যাওয়া হয়নি স্কুলের দরজায়ও। এখন ভিক্ষাবৃত্তিই একমাত্র সম্বল শিশুটির।
কুমিল্লা টাওয়ারের শপিংমলের স্কাইওয়ে কম্পিউটার দোকানে ভিক্ষা করতে আসা শিশু রিপন জানায়, লাকসামের মুদাফফরগঞ্জে ৯০ টাকার জন্য লাথি মেরে বাবাকে খুন করেছে এক দোকানদার। বাবা মারা যাওয়ার পর মা বিয়ে করে অন্যত্র চলে গেছে। আমি এখন দাদির সাথে বিজয়পুর থাকি। সেখান থেকে শহরে এসেছি। ভিক্ষা করে কিছু খাওয়ার জন্য ।
এত দুঃখ-কষ্টে জীবন অতিবাহিত করা শিশুটির মুখে হাসি লেগেই আছে। শরীরে নোংরা জামা, খাবার নেই পেটে। কি বিচিত্র জীবন। আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যত। কিন্তু এসব দুঃখে ভরা জীবন অতিবাহিত করা শিশুটির ভবিষ্যত কি ? রিপনের মত লাখ লাখ শিশু ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে দেশজুড়ে। তাদের দিকে দৃষ্টি কি পড়ে না বিত্তবান ও নিজেদের সফল দাবি করা রাজনীতিবিদ – ব্যবসায়ীদের ? এসব শিশুদের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া উচিত। তাদের ছন্নহারা জীবনে শিক্ষার প্রদীপ জালিয়ে সুন্দর ভবিষ্যত নিশ্চিত করা উচিত। আর এই জন্য বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত।

আর পড়তে পারেন