রবিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং

মুরাদনগরে এক কালারের গরুর চাহিদা বেশি

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
আগস্ট ১০, ২০১৯
news-image

মাহবুব আলম আরিফ :

গরুর একটি জাতের শরীরজুড়ে লালের প্রভাব। লেজ, লিং এমনকি পায়ের রংও লালচে। অন্যজাতটি সম্পূর্ণ বিপরীত। গোটা শরীরের সঙ্গে পায়ের খুর,শিং চোখের পাপরি নাকের সামনের অংশ ও লেজের পশম-সবই সাদা। প্রথমটি স্থানীয় দেশী গরু বা রেড কাটেল (আরসিসি)। পরেরটি মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিমের ঐতিহ্যবাহী ধবল গাই। স্থানীয় এই দুই জাতের গরুর মিলের জায়গাটি হচ্ছে দুই প্রজাতির মাাংসই অত্যন্ত সুস্বাদু ও নরম। এসব হিসেব নিকেশ এখন মিলিয়ে সবাই গরু না কিনলেও এই অঞ্চলের এখন আভিজাত্যের প্রতিক ও পছন্দের গরু হচ্ছে এক কালারের।

বিশেষ করে লাল রং এর গরু। নিতান্তই লাল না পেলে ধবধবে সাদা বা এক রং এর কালো গরু। তবে এই এক রং এর গরুর চাহিদা থাকলেও সরবরাহের ঘাটতি বাড়ছে দিনকি দিন। তাই অন্য জাতের বা রং এর গরুর চেয়ে লাল রং এর গরুর দাম তুলনামূলক বেশি।

কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার কোরবনীর ৪০টি গরুর হাটের মধ্যে দশটি হাটের অন্তত পঞ্চাশ জন গরু ক্রেতা ও বিক্রেতার সাথে কথা বলে ওই সব তথ্য জানা যায়।

উপজেলা ভেটেনারি ডাক্তার মাকসুদ আলম আজকের কুমিল্লাকে বলেন, মুরাদনগর উপজেলায় এই বৎসর ছোট বড় ৭ হাজার খামার থেকে প্রায় ২১ হাজার গরু কোরবানীর জন্য তৈরী করা হয়েছে। খামারিদের প্রথম পছন্দের গরু হচ্ছে লাল রং এর। কেননা লাল রং এর গরু দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি মাংস খুবই সুস্বাদু ও নরম।

সূত্রধর খামারীর মালিক রতন সূত্রদর বলেন, কোরবানীর জন্য তৈরী করার গরুগুলো অন্য সব গরু থেকে চার-পাঁচ মাস আগেই আলাধা করা হয়। বিশেষ করে লাল বা অন্য এককালারের গরু। এদের খাবারের তালিকায় থাকে, খইল, বুট, খেসারি,গম, মসুর ডালের ভুসি ও রাব (মিষ্টি গুড়)। তাই এই সব গরুর মাংসে আঁশ কম থাকে। মাংস হয় নরম ও তেলতেলে।

আর পড়তে পারেন