রবিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং

‘বরিশাইল্লারা খারাপ, কুমিল্লার লোক ইতর’ বলা যতবড় গুনাহ

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ২২, ২০১৯
news-image

 

অনলাইন ডেস্ক, ধর্ম বিভাগঃ

প্রায়শ’ই আঞ্চলিকতা বেধে আমরা বিভিন্ন এলাকা নিয়ে কটুক্তি করে থাকি। এসব যে ইসলাম অনুমোদন করে না তা রাজধানীর পল্লবীর মসজিদুল জুমা কমপ্লেক্সের খতিব মাওলানা আবদুল হাই মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ স্পষ্ট করেছেন। বরং এসব কথা চরম গুনাহের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।
এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন আমরা বলি, বরিশাইল্লারা খারাপ, মানুষ দুই প্রকারঃ ভালো মানুষ আর নোয়াখাইল্যা, কুমিল্লার লোক ইতর, চাটগাঁইয়ারা নিজেদের দেশি লোক ছাড়া কিছু বুঝে না, উত্তরবংগের লোক মফিজ ইত্যাদি।

আর আয়শা (রাঃ) এর বর্ণনা মতে, রাসূলুল্লাহ (ﷺ) বলেন, মিথ্যাবাদীদের মধ্যে নিকৃষ্টতম হচ্ছেঃ যে ব্যাক্তি কাউকে অপমান করার ক্ষেত্রে তার [বৃহত্তর] জনগোষ্ঠীকেও সাব্যস্ত করে, আর যে ব্যাক্তি তার পিতাকে অস্বীকার করে আর মাতার প্রতি ব্যাভিচারের [মিথ্যা] অপবাদ দেয়। (সুনান ইবনে মাজাহ ৩৭৬১)

অর্থাৎ আল্লাহর রাসূল (ﷺ) আমাদের দল/গোষ্ঠীকে সাব্যস্ত করা বিষয়গুলো অধিকাংশের ক্ষেত্রেই ঠিক না ভুল সেই প্রসংগেই যান নি। প্রথমেই একে মিথ্যার অন্তর্ভুক্ত করেছেন, আর দয়া করে লক্ষ্য করুন আর কোন ধরণের মিথ্যার সাথে একে এক কাতারে ফেলেছেন।

আমাদের একটু চিন্তা করা উচিত, আমরা যখন উপরের কথাগুলো বলি, তখন ভেবে দেখি কিনা যে বরিশাল নোয়াখালীর কোটি লোকের যদি একজনও ভালো হয়, চাটগাঁইয়া কোটি লোকের যদি একজনও সব নির্বিশেষে নিঃস্বার্থ উপকারী হয়, কুমিল্লার যদি একজনও ভদ্র হয় আর উত্তরবংগের যদি একজনও জ্ঞানবুদ্ধি সম্পন্ন হয়, তাহলে সামান্য মুখের সুখ করার জন্য সেই মানুষগুলোকে ঐ অপমানের মধ্যে ফেলার জন্য শেষ দিনের বিচারক আল্লাহ তায়ালা যে হিসাব দিতে বলবেন, সেদিন সেই হিসাব দেওয়ার হ্যাডম আমাদের থাকবে কিনা।

আল্লাহপাক আমাদেরকে ক্ষমা করে দিন, সঠিক পথ দেখিয়ে দিন আর, শেষ বিচারের পরাজয় থেকে রক্ষা করুন, আমিন।

আর পড়তে পারেন