বুধবার, ১৬ই জুলাই, ২০১৯ ইং

ব্রাহ্মণপাড়া-মিরপুর সড়কের বেহাল দশা,জনগণের দূর্ভোগ চরমে

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১১, ২০১৯
news-image

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লা থেকে বুড়িচং- ব্রাহ্মণপাড়া যাওয়ার অতি গুরুত্বপূর্ণ প্রধান সড়কটি দিয়ে  প্রতিদিন কয়েক হাজার লোক  যাতায়াত করে।  কুমিল্লার শাসনগাছা থেকে বুড়িচং উপজেলা পর্যন্ত এই সড়কটি সংস্কার কাজ করলে ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মানুষ অবহেলা অবহেলিত হয়ে আছে। ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা থেকে মিরপুর পর্যন্ত এই সড়কটি দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর ধরে এই বেহাল দশা।

ব্রাহ্মণপাড়া  উপজেলায় থেকে পাশ্ববর্তী এলাকায় চলাচলের একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি পিচ-খোয়া উঠে গেছে অনেক আগে, এর পর তৈরি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত। সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে নাকাল অবস্থা হয়। প্রতিদিন এই রাস্তায় হেলেদুলে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন। ছোটবড় দুর্ঘটনা এই রাস্তায় নিত্যদিনের ব্যাপার, দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহনগুলো ধীরে চলতে বাধ্য হচ্ছে। এ সড়কে নিত্যদিন যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য যাত্রীবাহি বাস, ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, পিকআপ ভ্যান, ইজিবাইক ও অটোরিকশাসহ নানা ধরনের যানবাহন চলাচল করে।

এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের পাশে মোশাররফ হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ,সাহেবাবাদ ডিগ্রি কলেজ,আব্দুল মতিন খসরু মহিলা ডিগ্রি কলেজ,আব্দুল রাজ্জাক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে,বড়ধুশিয়া আর্দশ কলেজ,বড়ধুশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়,চান্দলা কে বি হাই স্কুল এন্ড কলেজ,ষাইটশালা হাই স্কুল এন্ড কলেজসহ অন্তত ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।  এসব প্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী প্রতিদিন তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে এই পথ ব্যবহার করেন।

সাড়ে ১৪ কিলোমিটার সড়কে পিচ ও খোয়া উঠে ছোট-বড় গর্ত তৈরি হয়েছে। কোথাও পিচ ডেবে গিয়ে রাস্তার ভিতরেই খাদের তৈরি হয়েছে,যানবাহন চলছে হেলেদুলে ঝুঁকি নিয়ে। দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহন চালাতে হয় ধীর গতিতে। এই সড়কের এক কিলোমিটার পথ যেতে অন্তত ১০ মিনিট সময় লাগে।

কখনো কখনো বাস, মালবোঝাই ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান গর্তে পড়ে গেলে দুর্ভোগের আর শেষ থাকে না। সড়কে তখন অন্য যানবাহন চলাচল আটকে থাকে। বর্ষাকালে অবস্থা হয় আরো ভয়াবহ।

সড়কের শুরুতেই চান্দলা ইউনিয়ন চারিপাড়া হতে চান্দলা বাজার পর্যন্ত দীর্ঘ ২ কিলোমিটার রাস্তাটি এলাকার অবস্থা খুবই খারাপ। রাস্তা ছোট-বড় গর্ত ও খানাখন্দকে ভরপুর। জায়গায় জায়গায় শুধু পিচই নয় খোয়াও উঠে গেছে। শুধু যানবাহন নয়, পথচারীদের চলাফেরায়ও অসুবিধা হচ্ছে।এই রাস্তায় প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটে থাকে।।

 

আর পড়তে পারেন