মঙ্গলবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ভারতকে দুঃস্বপ্ন উপহার দিয়ে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ১০, ২০১৯
news-image

স্পোর্টস ডেস্কঃ

এত অল্প পুঁজি নিয়ে নিউজিল্যান্ড ভারতকে হারিয়ে দিবে । কে ভেবেছিল ? নিউজির‌্যান্ডকে কম রানে আটকিয়ে ভারতের প্লেয়ারদের হাসি-ঠাট্টাই বলে দিচ্ছিল এই রানটা বেশ হেসে খেলেই করে নিবে শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনের ভারত টিম। কিন্তু ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ৫ রানেই নেই টপ অর্ডারের ৩ উইকেট। বিশ্বকাপ ইতিহাসের সেমিফাইনালে এর থেকে কম রানে ৩ উইকেট হারায়নি কোনো দলই। লজ্জার এক রেকর্ড গড়েই সেমিফাইনালের লক্ষ্য তাড়া শুরু করে ভারত। আর এই বাজে রেকর্ডই শেষ পর্যন্ত কাল হয়ে দাঁড়ালো টিম ইন্ডিয়ার জন্য। বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে ১৮ রানে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিলো তারা।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে আজ (বুধবার) চরম ব্যর্থতার পরিচয় দেয় ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। দলীয় ৪ রানে তাদের বিপর্যয়ের শুরু। আগের ৩ ম্যাচেই সেঞ্চুরি করা রোহিত এদিন মাত্র ১ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। ম্যাট হেনরির দারুণ এক ডেলিভারি তার ব্যাটের কোণায় লেগে জমা হয় উইকেটরক্ষক টম লাথামের হাতে। ওপেনার লোকেশ রাহুলও প্রায় একইভাবে ১ রান করে হেনরির বলে ধরা দেন লাথামের হাতে।

রাহুল ফেরার আগেই আউট হন বিরাট কোহলি। বোল্টের সুইংয়ে পরাস্ত হয়ে লেগ বিফোরের ফাঁদে পা দেন ভারতীয় অধিনায়ক। আইসিসির ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা এই ব্যাটসম্যানও ১ রানের বেশি করতে পারেননি।

তরুণ ঋষভ পন্থকে নিয়ে দাঁতে দাঁত চেপে কিছুটা প্রতিরোধের ইঙ্গিত দেন অভিজ্ঞ দীনেশ কার্ত্তিক। তবে ২৫ বল খেলে মাত্র ৬ রান করে তাকেও ধরতে হয় সাজঘরের পথ। তার উইকেটটিও যায় হেনরির ঝুলিতে। কিন্তু উইকেটটিতে হেনরির না যত অবদান, তার চেয়ে বেশি অবদান ক্যাচ নেয়া জিমি নিশামের। পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা নিশাম এক হাতে যেভাবে বলটি ধরেছেন, নিঃসন্দেহে এবারের টুর্নামেন্ট সেরা ক্যাচ হতে যাচ্ছে এটি।

এদিকে পঞ্চম উইকেটে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হার্দিক পান্ডিয়া ও পন্থকেও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই ফিরিয়ে দেন স্পিনার মিচেল স্যান্টনার। প্রথম স্যান্টনার ফেরান ৩২ রান করা পন্থকে। এরপর ৩৫ রান করা পান্ডিয়াকে কেন উইলিয়ামসনের ক্যাচ বানান তিনি।

তবে সপ্তম উইকেট জুটিতে হঠাৎ করেই নিভে যাওয়া জয়ের আলো দেখতে শুরু টিম ইন্ডিয়ায় সমর্থকরা। উইকেটে থাকা মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা ম্যাচ প্রায় ঘুরিয়েই দিয়েছিলেন। দুজনে মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ১২৮ রান।

এর মধ্যে জাদেজা প্রায় ৫ বছর পর ফিফটি তুলে নেন। তবে তিনি ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি। ব্যক্তিগত ৭৭ রানে অনবদ্য এক ইনিংস খেলে বোল্টের শিকার হন তিনি। যদিও তখনও ভারতীয়দের জয়ের আশা টিকে ছিল ধোনির উইকেটে থাকায়।

কিন্তু ধোনি কাটায় কাটায় ৫০ রান করে মার্টিন গাপটিলের দারুণ এক থ্রোতে রানআউট হলেই ম্যাচ জয়ের স্বপ্ন ভঙ্গ হয়ে টিম ইন্ডিয়ার। ৩ বল হাতে থাকতেই ২২১ রানে অলআউট হয় ভারত।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ম্যাচে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন ম্যাট হেনরি। অন্যদিকে, ২টি করে উইকেট পেয়েছেন ট্রেন্ট বোল্ট ও মিচেল স্যান্টনার।

আর পড়তে পারেন