বুধবার, ১৬ই জুলাই, ২০১৯ ইং

কুমিল্লায় সেনিটারি মিস্ত্রি মেহেদী পুলিশের চাকরি পেয়েছেন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৯, ২০১৯
news-image

 

ইমতিয়াজ আহমেদ জিতুঃ

 মেহেদী হাসান,  দরিদ্র পরিবারের বড় সন্তান।  সংসারের জীবিকা নির্বাহের ভার অল্প বয়সে নিজ কাঁধেই তুলে নিয়েছেন। কুমিল্লা নগরীতে সেনিটারি মিস্ত্রির কাজ করে সংসার চালিয়ে আসছিলো। মাত্র ১০৩  টাকায় চাকুরি পেয়ে আবেগে অঝোরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তিনি।

সোমবার রাতে কুমিল্লা পুলিশ লাইন মিলনায়তনে পুলিশের কন্সটেবল পদে চাকুরির ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

মেহেদী হাসানের  বাড়ি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার পশ্চিম মাঝিগাছা গ্রামে। তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম। রফিকুল ইসলাম বেকার। পুরো সংসারটা চালাতে হয় মেহেদী হাসানকে। ফলাফল ঘোষণার পর এভাবে কান্না করতে দেখে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন এসে তাকে সান্তনা দিয়ে পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামের কাছে নিয়ে যান। এ সময় মেহেদী হাসানের মাথায় হাত বুলিয়ে শান্তনা দেন পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। পরে এক সাথে ছবিতে আবদ্ধ হোন।

মেহেদী হাসান জানান, অতীতে অনেক কিছু শুনেছি। লাখ লাখ টাকা ছাড়া চাকুরি হয় না। কিন্তু ভুল প্রমাণিত হল।  আমি ১০৩ টাকায় চাকুরি পেলাম । আমি এখন বাংলাদেশ পুলিশের একজন গর্বিত সদস্য হতে  যাচ্ছি। দেশের মানুষের সেবা করাই আমার লক্ষ্য।

পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, যারা চাকুরি পেয়েছেন তারা তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী চাকুরি পেয়েছেন। তারা লিখিত পরীক্ষায় ভাল করেছেন। মৌখিক পরীক্ষায় ভাল করেছেন।

আর পড়তে পারেন