শনিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং

নানান অনিয়ম আর অবহেলায় দেবিদ্বারের এতিম শিশুরা ,ঝুকিপূর্ণ আবাসিক ভবন

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুলাই ৭, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কুমিল্লা দেবিদ্বার উপজেলার প্রাণ কেন্দ্র অবস্থিত সমাজসেবা অধিদপ্তর এর আওতাধীন গুনাইঘর মৌজায় তিন একর জায়গায় ১৯৯৫ সালের ১৬ ফ্রেবুয়ারী ১০০ শয্যার নির্মিত হয় শিশু পরিবারটি। বর্তমানে নানান অনিয়ম আর অবহেলায় দেবিদ্বার সরকারী শিশু পরিবার ।

উপজেলা ক্রীড়াঙ্গন থেকে শুরু করে সংস্কৃতি চর্চায় বেশ এগিয়ে দেবিদ্বার সরকারী শিশু পরিবারের সদস্য’রা । দেবিদ্বার সরকারী শিশু পরিবারে প্রবেশ করতেই চোখে পড়বে চারতলা বিশিষ্ট ভবনটি ।সিড়ি দিয়ে উপরে উঠতে গেলেই তরঙ্গ অনুভত হব আপনার । ভবনটির ষোল টি কক্ষের চারপাশের প্রায় শতাধিক জানালার নেই কোন কাচঁ কিংবা ষ্টিলের ছিটকড়ি, মরিচায় নষ্ট হয়ে পড়েছে গ্রিলও। খসে পড়েছে ছাদের আস্তরন । দেয়ালে বড়-বড় ফাটল, অল্প ঘষাতেই ইটরে লাল বালু বর্ষন হয়ে পড়ছে মাটিতে । খসে পড়ছে গুলো ইটও । ঊনসত্তর(৬৯) জন বাবা/মা হারানো সন্তানদের লালন পালন হচ্ছে বুকিপূর্ণ এই ভবন ।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়,বাচ্চাদের মারধর এর ভয় দেখিয়ে করানো হচ্ছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ । যাদের বয়স শিশু থেকে কিশোর ছুইঁ ছুইঁ তাদেরকে দিয়েই সারা হচ্ছে রান্নার কাজ । কোনো তদারকি না থাকায় দিন দিন অপুষ্টি ও দীর্ঘ দিন রেফ্রিজারেটরে সংরক্ষিত খাবার খাওয়া হচ্ছে,এত দুরবস্থার সঙ্গে বিশুদ্ধ পানি সংকট তো লেগেই আছে। অস্বাস্থ্যকর শৌচাগার,শিশুদের পাঠদানে অবহেলা, পয়ঃনিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকাসহ নানা সংকটে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে এসব এতিম শিশুদের ভবিষ্যৎ। সেই সঙ্গে প্রতিটি কক্ষের দরজা, বিছানা ও চেয়ার-টেবিল ভাঙা।সবগুলো কক্ষে বৈদ্যুতিক পাখা না থাকায় তীব্র গরমে সহ্য করতে হচ্ছে কোমলমতি শিশুদের ।

আর পড়তে পারেন