মঙ্গলবার, ১৫ই জুলাই, ২০১৯ ইং

ঈদে ভ্রমণ-রসনা পিপাসুদের জন্য প্রস্তুত “ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট”

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ১৫, ২০১৯
news-image

মোঃ বেলাল হোসাইন ঃ
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম ও নাঙ্গলকোট উপজেলার ভ্রমণপিপাসু মানুষের নিকট এক জনপ্রিয় ও আকর্ষনীয় স্থানের নাম চিলপাড়া ব্রীজ। ব্রীজের উপর থেকে নিচে পানির সারি, ব্রীজসংলগ্ন অংশে ডাকাতিয়া নদীর মাঝে দ্বীপসদৃশ বাড়ি, পানিতে বহমান নৌকা এক অপরুপ সৌন্দর্য্যরে সৃষ্টি করে। যা দেখতে সারা বছরই ভ্রমণপিপাসুরা ভিড় জমায় ব্রীজের উপর ও ব্রীজসংলগ্ন সড়কের আশেপাশে। বিশেষ করে ঈদ মৌসুমে চিলপাড়া এলাকায় মানুষের ভীড় দেখে মনে ঢাকা-চট্রগ্রামের বিখ্যাত কোন পর্যটন স্পট। রাস্তার দুই পাশে সারি সারি মোটর সাইকেল ও ব্যাক্তিগত গাড়ি সৃষ্টি করে এক অপরুপ সৌন্দর্য্যরে।

এবারের ঈদে চিলপাড়ার সৌন্দর্য্যকে আরও বাড়িয়ে তুলতে সূ-স্বাধু খাবারের মনোরম পরিবেশের স্লোগানে দ. কুমিল্লায় একের পর এক মন মাতানো ও সাড়া জাগানো রেষ্টুরেন্ট এন্ড রিসোর্টের ভীড়ে অন্যতম নতুন সংযোজন “ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট”। এ অঞ্চলের সর্বাধুনিক ও আন্তর্জাতিক মানের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিয়ে ২০১৮ সালে নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নে নাঙ্গলকোট ও চৌদ্দগ্রামের সীমান্তবর্তী ঐহিত্যবাহী পর্যটন কেন্দ্র চিলপাড়া ব্রীজ সংলগ্ন শিহর (মনতলী) মৌজায় ১০ শতক জমিনের উপর এ লেক রিসোর্টটি স্থাপিত হয়। মন মাতানো আর বাহারী ডিজাইনে সজ্জিত “ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” এ ফাষ্টফুড, ইন্ডিয়ান, চাইনিজ, থাই এবং বাংলা খাবারের পাশাপাশি পর্যটকদের জন্য বিনোদনের নানান সুযোগ সুবিধা।

“ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” এ আপনার পছন্দের যত খাবার-দাবার :
শতভাগ হালাল খাবারের প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রতিষ্ঠিত ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্টে পাওয়া যাবে চাহিদা মতো সব ধরনের খাবার। এখানে রয়েছে উচ্চমান স¤পন্ন সব ধরনের ফ্রাইড চিকেন, ব্রস্ট চিকেন, তন্দুরী চিকেন, কাবাব, বিভিন্ন ধরনের ভুনা খিচুড়ী, বম্বে ও ইরানী বিরিয়ানী, চিকেন ফ্রাইসহ বিভিন্ন ধরনের ফ্রাই, থাই, চিকেন, এগ, ভেজিটেবল, বিপ নুডলস্। এছাড়াও থাকছে চিকেন গ্রীল, চিকেন চাপ, থাই, চিকেন, ভেজিটেবল, হট, ফিস, ক্লিয়ার সুপ, বিভিন্ন ধরনের বার্গার, পিজা, স্যান্ডউইস, সালাদ ও চাইনিজ-এর বুফেসহ বেভারেজের সব ধরনের আইটেম। দুপুরের খাবার এবং সকালের নাশ্তার আইটেমের মধ্যে রয়েছে গরু ভুনা, খাসির রেজালা, সরিষা ইলিশ, ভুনা খিচুরী, বিভিন্ন আইটেমের মাছ, চিকেন ফ্রাইড রাইস, এগ ফ্রাইড রাইস, ভেজিটেবল, ফ্রর্ণ ফ্রাইড রাইস, রুটি, পরোটা, তেহারী, গিলা কলিজা, স্পেশাল গরুর হালিম, সবজি/ভাজি। এছাড়া চা, কোমল পানিয়, কফি বার, জুস বার, আইস ও হট টি, হার্ড ও সফট আইসক্রিম, দধি ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট- এ সব ধরনের খাবার তৈরি হবে নিজস্ব কিচেনে।

“ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” – এ বিনোদন আয়োজন :
ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্স- এ রয়েছে ব্র্যান্ড এর প্রফেশনাল সাউন্ড সিস্টেম, ঝর্ণা, বাচ্চাদের বিভিন্ন খেলনার সামগ্রীর সুবিধা।

“ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” এর অন্যান্য সুবিধা :
এখানে জন্মদিন, বিয়ে, গায়ে হলুদ, করর্পোরেট ইভেন্ট, প্রডাক্ট ওপেনিং, কনফারেন্স, আকীকা, খৎসাসহ সকল প্রকার সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান আয়োজনের বাড়তি সুবিধা।

যাতায়াত ব্যবস্থা সুবিধা :
চিওড়া-ঢালুয়া সড়কের চিওড়া রাস্তার মাথা থেকে রিজার্ভ সিএনজিতে মাত্র ২০ মিনিটেই পৌছা যায় ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্টে। রিজার্ভ সিএনজি নিয়ে আসলে সর্বোচ্চ ১৫০ টাকা ভাড়া আর সিরিয়ালের সিএনজিতে আসলে জনপ্রতি মাত্র ৩০-৩৫ টাকা ভাড়ায় এখানে আসা যায়। শাহ ফখরুদ্দিন সড়ক হয়ে আসলে ধোড়করা বাজার থেকে মাত্র ১০-১৫ টাকায় রেষ্টুরেন্টটিতে পৌছানো যায়। এছাড়া নাঙ্গলকোট বাজার থেকে আসলে মাত্র ১৭০-২০০ টাকায় পৌছানো যায় “ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” এ। মুলত যাতায়াত ব্যবস্থার সুবিধার কারণেই পর্যটন কেন্দ্রটি অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

“ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট” এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো ঃ মহসীন স্বপন বলেন, অত্যাধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা নিয়ে বৃহত্তর দ. কুমিল্লার বিনোদনের সহিত খাওয়া ও নাশ্তার এক ব্যতিক্রম আয়োজন নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে “ডাকাতিয়া কাবাব এন্ড রেষ্টুরেন্ট”। পর্যটকদের নিকট রেষ্টুরেন্টটিতে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে এখানে পানিতে ভাসমান বিভিন্ন ডিজাইনের ভাসমান ঘর নির্মিত হচ্ছে। যা অতি সহযেই পর্যটকদের আকর্ষন করবে এবং তাদের আনন্দকেও দ্বিগুন করে তুলবে। পাশাপাশি পর্যটকদের নামাজের কথা চিন্তা করে এখানে মসজিদ নির্মাণ করা হবে অতি শীঘ্রই।