বুধবার, ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং

অবমুক্ত হলো কুমিল্লার পরিবেশ বন্ধু মতিন সৈকতের একটি শঙ্খচিল

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
জুন ১৩, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টার :

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুল ইসলাম খান বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সকালে পরিবেশ বন্ধু মতিন সৈকতের উদ্ধার করা একটি শঙ্খ চিল অবমুক্ত করেন।

মতিন সৈকত পাখিটি নিয়ে তার কার্যালয়ে উপস্থিত হলে তিনি পাখিটি অবমুক্ত করেন।

দাউদকান্দির প্লাবনভূমিতে মৎস্য চাষে মডেলের পাশাপাশি পুকুর,দিঘী,ডোবা, জলাশয় সব জায়গায় ব্যাপক মাছ চাষ করা হয়। মাছ যেখানে পাখির বাস সেখানে। এখানে হাজারো পাখির বিচরণ।
চাষীরা খামারের ছোট মাছকে রক্ষার জন্য সুতা বা জাল পেতে পাখিদের বাধা দেয়। এতে মাছ শিকারী বিভিন্ন পাখি আটকে আহত হয়ে ঝুলে থাকে। মতিন সৈকত এসব আটক,আহত পাখিদের খুঁজে বের করে সেবা যত্ন দিয়ে ছেড়ে দেন। তিনি এ পর্যন্ত এক হাজারের বেশি পাখি অবমুক্ত করেন।

 

রাষ্ট্রীয় পুরস্কার প্রাপ্ত কৃষি, পরিবেশ, সমাজ উন্নয়ন সংগঠক মতিন সৈকত তিন দশকের বেশি সময় ধরে কৃষি,পরিবেশ,সমাজ উন্নয়নে অবদান রেখে দুইবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক গ্রহণ করেন।

পরিবেশ সংরক্ষণ ও দূষণ নিয়ন্ত্রণে ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে সরকারিভাবে চারবার চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম স্হান অর্জন করেন। তিনি দশম শ্রেণিতে পড়ার সময় সৃজনশীল কাজের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন পত্র পান।

তিনি ২০০৬ সাল থেকে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ এবং পাখি উদ্ধার ও অবমুক্তিতে নিরন্তর কাজ করে দৃষ্টান্ত স্হাপন করেন। তার পাখি উদ্ধার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বি,বি,সি রেডিও, টিভি,ওয়েবসাইট,পেইজ এবং ফেইসবুকে ডকুমেন্টারি উপস্থাপন করে।

পরিবেশ বিষয়ে কাজ করে তিনি জাতিসংঘের এফ.এ.ও এবং কানাডা বাংলাদেশ সহ অনান্য সংস্থা থেকে অভিনন্দন পেয়েছেন। কুমিল্লার দাউদকান্দির উপজেলার আদমপুর গ্রামের পরিবেশ বন্ধু মতিন সৈকত বহুমুখী সমাজ উন্নয়নকর্মী। তাকে নিয়ে জাতীয় দৈনিক,অনলাইন,রেডিও,টেলিভিশন প্রতিবেদন উপস্থাপন করে।

আর পড়তে পারেন