বুধবার, ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং

তরুণীদের কেনাকাটায় জমে উঠছে কুমিল্লার ঈদবাজার

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ২৮, ২০১৯
news-image

 

অনলাইন ডেস্কঃ
ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি, ঈদ মুসলিম বিশ্বের আনন্দ ও উৎসবের আরেকটি নাম। মহান সৃষ্টিকর্তার ইবাদতের উদ্দেশ্যে সিয়াম সাধনা ও জাহান্নাম থেকে মুক্তি পাওয়ার মাস মাহে রমজান শেষে পালিত হয় মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। ঈদের এই আনন্দকে আরও রঙ্গিন করে তুলতে নতুন জামা, জুতা ও কসমেটিকস কেনা আমাদের দেশের সংস্কৃতির একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশী-বিদেশী নতুন নতুন বাহারি পোষাকে সাজিয়েছে দোকানীরা। ঈদের বাকী আরও ৯-১০ দিন ইতোমধ্যেই জমে উঠেছে কুমিল্লার বিভিন্ন মার্কেটগুলো। বিশেষ করে গার্মেন্টস, কসমেটিকস ও জুতার দোকানগুলোতেই ক্রেতাদের বেশি ভিড় দেখা গেছে।

কুমিল্লা ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজা, সাত্তার খাঁন কমপ্লেক্স, খন্দকার হক টাওয়ারের পাশাপাশি খোলা বাজারের গার্মেন্টস দোকানগুলোতে জমে উঠেছে ঈদের বেচাকেনা।

শনিবার (২৫ মে) সকাল থেকে কান্দিরপাড় ও রেইসকোর্স এলাকার তিনটি মার্কেট ঘুরে দেখা যায় দোকানীরা ব্যস্ত সময় [আর করছেন।

নারী ক্রেতাদের সংখ্যাই বেশি পুরুষের চেয়ে। ক্রেতাদের কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, একটু আগে আগেই ঈদের কেনাকাটা সেরে ফেলতে চান তারা। দর দামের বিষয়ে একেক জনের একেক মত। তবে দাম খুব একটা বেশি নয় বলেই জানিয়েছেন।

এখন ভিড় কিছুটা কম তাই দামে কিছুটা সাশ্রয় পাওয়ার সম্ভাবনায় তারা পরিবার ও নিজের পছন্দের সাজসজ্জার সরঞ্জাম কিনে নিতে চান আগে আগেই। তৈরি পোশাকের দোকান, ক্রোকারিজ দোকানগুলোতেও ক্রেতাদের ভিড় দেখা গেছে। জুতা ও চামড়ার পণ্যের দোকানেও ছুটছেন ক্রেতারা।

কুমিল্লা ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজা মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ঈদ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে ক্রেতাদের উপস্থিতিও বাড়ছে। বিক্রি ভালো তাই খোশ মেজাজে থাকা দোকানীরা জানান এবারের ঈদে তরুণীদের পছন্দ ইন্ডিয়ান পোশাক আর পুরুষদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে জিন্স পেন্ট ও পাঞ্জাবী।

ঈদ উপলক্ষে নতুন মালে বোঝাই করেছেন দোকান। অধিকাংশ ক্রেতারাই কেনাকাটা করছেন তবে অনেকেই দরদাম যাচাই করে দামে না বনলে ঘুরেফিরে দেখে চলে যাচ্ছেন। ক্রেতাদের কাছে আশানুরূপ বেচাকেনা হবে বলেই ধারনা ব্যবসায়ীদের।

মধ্যবিত্ত ও নিন্মমধ্যবিত্ত ক্রেতাদের ভিড় খোলা বাজারের কমদামী কাপড় ও জুতার দোকানগুলোতে। এ সব দোকানগুলোতেও উপচে পড়া ভিড়। নিম্ন আয়ের মানুষের। নিজেরদের সাধ্যের মধ্যে পরিবারের সকলের জন্যই কেনাকাটা করতে দেখা যায়। প্রায় সকল মার্কেটেই অভিভাবকদের সাথে দেখা গেছে পরিবারের ছোট বড় সদস্যদেরও।

এছাড়া কুমিল্লা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলা সদরের বড় মার্কেটগুলোতে জমে উঠতে শুরু করেছে ঈদের বাজার। ক্রেতাদের আকর্ষণ বাড়াতে বিভিন্ন মার্কেটে রেফেল ড্র ও কুপনের ব্যবস্থাও করা হয়েছে ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে। আবার কোথাও কোথাও বাহারি গেইট ও রঙ্গিন আলোর বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন মার্কেট।

সব মিলিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগমনে নতুন পোশাক, জামা, জুতা শাড়ি কসমেটিকসসহ গৃহস্থালি সামগ্রী বেচাকেনায় উৎসব মুখর পরিবেশ লক্ষ করা গেছে মার্কেটগুলোতে।

মার্কেটগুলোতে ঢুকলেই মনে হবে ঈদের আমেজ যেন ছড়িয়ে পরেছে। ঈদের আনন্দে আনন্দিত হোক প্রতিটি মানুষের হৃদয়। ধনী গরিব সকলের মাঝে ঈদ বয়ে আনুক অনাবিল আনন্দের ধারা এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।

আর পড়তে পারেন