রবিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং

ব্রাহ্মণপাড়ায় ১৫০ কেজি গরুর মাংস মাটি চাপা দিয়ে ধ্বংস, ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা এবং এক জনকে অর্থদন্ড

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ২৬, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ

গতকাল শনিবার কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেরা সদর বাজারে খোলা গরুর পঁচা মাংস ক্রেতাদের নিকট বিক্রয় করার অপরাধে ৫ জন মাংস ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জাফর সাদিক চৌধুরী। এসময় তিনি বিক্রয় করার জন্য পঁচা মাংস ফ্রিজে রাখার অপরাধে এক আইস ব্যবসায়ীকেও নগদ অর্থদন্ড দিয়েছেন এবং ১৫০ কেজি মাংস মাটি চাপা দিয়ে ধ্বংস করে দেন।

সরজমিনে ঘুরে ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২৫ মে শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা সদর বাজারে গরুর পঁচা মাংস বিক্রয় হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জাফর সাদিক চৌধুরী উপজেলা প্রাণিসম্পদ সার্জেন ডাক্তার শুভ সূত্রে ধর ও স্যানিটারী পরিদর্শক পারভিন সুলতানাকে সাথে নিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় খবর পেয়ে মাংস ব্যবসায়ী উপজেলা সদর ইউনিয়নের নাইঘর নোয়াপাড়া গ্রামের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে রাসেল হোসেন (২৮), একই গ্রামের আবু তাহের (৭০), একই গ্রামের রহমান মিয়ার ছেলে শহীদ মিয়া (৪৫), আবু তাহেরে ছেলে জামাল মিয়া ও কেরু মিয়ার ছেলে আলীম মিয়া দোকান ফেলে পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে সংবাদ পাঠালেও তারা কেউ না আসায় তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও দোকানে ঝুলানো ১৫০ কেজি গরুর পঁচা মাংস উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন পুকুরের পাশে মাটি চাপা দিয়ে ধ্বংস করেন দেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। অপর দিকে বিক্রয়ের জন্য গরুর পঁচা মাংস ফ্রিজে রাখার অপরাধে উপজেলা সদর বাজারের আইস ফ্যাক্টরি মালিক আব্দুল মতিন মিয়াকে ভ্রাম্যান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নগদ ৭ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন। এসময় পুলিশের একটি দল ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে যোগ দেয়।

আর পড়তে পারেন