বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ফের অভিযান ভোক্তা অধিদপ্তরের, জরিমানা আদায়, মহানগরে অভিযানের দাবী কুমিল্লাবাসীর

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মে ৭, ২০১৯
news-image

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ভোক্তা অধিদপ্তর কুমিল্লা জেলা কার্যালয় কর্তৃক কুমিল্লার বিভিন্ন অঞ্চলে ধারাবাহিক অভিযানের ফলে স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ জনমনে। ভোক্তা অধিদপ্তরের এমন কার্যক্রমের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে, কুমিল্লার রাণীর বাজার এলাকার বাসিন্দা জুয়েল বলেন, ‘এই ধরণের অভিযানের ফলে প্রশাসনের উপর মানুষের আস্থা ফিরে আসবে। সেই সাথে অসাধু ব্যবসায়ীরাও শুধরে নিতে পারবে নিজেদের। তবে জরিমানার হার আরও বাড়ানো উচিৎ।’

এ সময় এই প্রতিবেদকের সাথে কুমিল্লা মহানগরীর বেশ কয়েকটি এলাকার বাসিন্দাদের কথা হলে, তারাও একই মন্তব্য করে কুমিল্লা মহানগরীর হোটেল ও রেস্তোরাঁগুলোয় অভিযান চালানোর দাবী করেন। এসময় নগরীর বেশ কয়েকটি রেস্তোরাঁর নামে মানহীন খাবার অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রয়ের অভিযোগ করেন তারা।

এদিকে, আসন্ন রমজানকে কেন্দ্র করে গত কয়েকমাস ধরেই কুমিল্লা মহানগরসহ বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালাচ্ছে ভোক্তা অধিদপ্তর কুমিল্লা। এই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আজ মঙ্গলবার (৭/৫/২০২৯) তারিখে প্রথম রমজা‌নে জাতীয় ভোক্তা অ‌ধিকার সংরক্ষণ অ‌ধিদপ্তর, কু‌মিল্লা জেলা কার্যালয় কর্তৃক জেলার বু‌ড়িচং উপ‌জেলার নিমসার বাজা‌রে এক তদার‌কিমূলক অ‌ভিযান প‌রিচা‌লিত হয়। জেলা কার্যাল‌য়ের সহকারী‌ প‌রিচালক মো: আছাদুল ইসলা‌মের নেতৃ‌ত্বে প‌রিচা‌লিত এ অ‌ভিযা‌নে ইফতা‌রির জন্য বানা‌নো জিলা‌পি ও ব‌রিন্দা‌তে ক্ষ‌তিকারক রং ও হাই‌ডোজ ব্যবহার করায় মেসার্স নিবারণ সুইট‌মিট‌কে ৫,০০০ টাকা জ‌রিমানা এবং আনুমা‌নিক এক মণ জিলা‌পি ও এক মণ বু‌রিন্দা ধ্বংস করা হয়, একই অ‌ভি‌যো‌গে সঞ্জয় মিষ্টান্ন ভাণ্ডার‌কে ৫,০০০ টাকা জ‌রিমানা ও ৩০ কে‌জি রং মি‌শ্রিত মি‌ষ্টি ধ্বংস করা হয়, অনুরুপ অ‌ভি‌যো‌গে মেসার্স শ্রী গুরু মিষ্টান্ন ভাণ্ডার‌কে ৫,০০০ টাকা জ‌রিমানা ও ২০ কে‌জি মি‌ষ্টি ধ্বংস করা হয়, বা‌সি গ্রীল ও অন্যান্য বা‌সি খাবার একই সা‌থে কাঁচা মাছ মাং‌সের সা‌থে রাখার অ‌ভি‌যো‌গে মেসার্স রুপসী বাংলা রে‌স্টু‌রেন্ট‌কে ৫,০০০ টাকা জ‌রিমানা ও বা‌সি খাবার ধ্বংস করা হয়, দৃশ্যমান স্থা‌নে মুল্য তা‌লিকা‌ প্রদর্শন ন‌া করায় জাহাঙ্গীর ষ্টোর‌কে ২,০০০ টাকা ও একই অ‌ভি‌যো‌গে ইব্রা‌হিম ষ্টোর‌কে ৫,০০০ টাকাসহ মোট ৬টি প্র‌তিষ্ঠান‌কে ২৭,০০০ টাকা‌ জ‌রিমানা করা হয়।

অন্য‌দি‌কে বাজা‌রের পাইকা‌রি দোকানী‌দের‌কে খুচরা ক্রেতা‌দের নিকট পাকা ভাউচার সরবরা‌হের জন্য নি‌র্দেশনা দেওয়া হয়, যা‌তে করে অন্যান্য বাজা‌রে ব্যবসায়ী‌দের নিকট ক্রয়মূল্য যাচাই করা যায়। এএসআই আ‌নি‌সের নেতৃ‌ত্বে দেবপুর ফাঁড়ি পু‌লি‌শের এক‌টি টিম এ কা‌জে সা‌র্বিক সহ‌যো‌গিতা ক‌রেন। ভোক্তা অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে বলা হয়, জনস্বা‌র্থে রমজান মাসব্যাপী এ অ‌ভিযান অব্যাহত থাক‌বে।

আর পড়তে পারেন