বুধবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

ভারতের ২৫ কোটি অতিদরিদ্র মানুষ পাবে ৬ হাজার রুপি : রাহুল গান্ধী

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ২৬, ২০১৯
news-image

ডেস্ক রিপোর্ট :

ন্যূনতম রোজগারের প্রতিশ্রুতি আগেই দেওয়া হয়েছিল, এবার লোকসভা ভোটের মুখে টাকার অঙ্কটাও ঘোষণা করল কংগ্রেস। আজ সোমবার দলের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের পর কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়ে দিলেন, তাঁরা ক্ষমতায় এলে দেশের অতি দরিদ্র ৫ কোটি পরিবার এবং মোট ২৫ কোটি মানুষের ব্যাংক খাতায় বছরে ৭২ হাজার রুপি জমা দেওয়া হবে।

প্রতিশ্রুতি পালিত হওয়ার অর্থ, দেশের ২৫ কোটি অতিদরিদ্র মানুষ মাসে ৬ হাজার রুপি পাবে। রাহুল বলেন, ‘এই টাকা দেওয়া সরকারের পক্ষে সম্ভব। পাঁচ-ছয় মাস ধরে আমরা এই বিষয়টি নিয়ে ভেবেছি। বহু অর্থনীতিবিদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। আমরাই এ দেশে গরিবদের জন্য এক শ দিনের কাজের প্রকল্প চালু করেছিলাম। এই প্রকল্পও আমরা বাস্তবায়িত করব। গরিবদের ন্যায় দেব।

৪৮ বছর আগে ১৯৭১ সালের ভোটে রাহুলের দাদি ইন্দিরা গান্ধী ‘গরিবি হটাও’ স্লোগান দিয়েছিলেন। সেই একই সংকল্প এবার তাঁর নাতি রাহুলের কণ্ঠে। প্রকল্পটি ঘোষণা করে রাহুল বলেন, ‘দেশের হতদরিদ্র মানুষদের ন্যূনতম রোজগার নিশ্চিত করার এত বড় প্রকল্প পৃথিবীতে নেই। আমরা দেশ থেকে গরিবি দূর করব।’

এ ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ করতেও রাহুল ছাড়েননি। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যদি দেশের ধনীদের গাদা গাদা টাকা দিতে পারেন, আমরাও তাহলে দরিদ্রদের কিছু অর্থ দিতে পারি।’ তিনি জানান, মাসে ১২ হাজার রুপির কম যাঁদের আয়, সেসব পরিবারই এই প্রকল্পের আওতায় আসবে।

কংগ্রেসের নির্বাচনী ইশতেহারে এই প্রকল্প বড়ভাবে স্থান পাচ্ছে। কিছুদিন আগেই রাহুল দেশের দরিদ্রদের ন্যূনতম রোজগার নিশ্চিত করার কথা ঘোষণা করেছিলেন। সোমবার জানালেন টাকার অঙ্ক। দেশের ঋণগ্রস্ত কৃষকদের সুরাহার জন্য বিজেপি সরকার গত বাজেটে বছরে ৬ হাজার রুপি সাহায্যের কথা জানিয়েছিল। ২ হাজার করে তিন কিস্তিতে সেই টাকা দেওয়াও শুরু হয়েছে। কংগ্রেস সেই ঘোষণার সমালোচনা করে বলেছিল, ঋণজর্জর কৃষকদের জন্য ওই প্রকল্প শাসক দল বিজেপির কুম্ভীরাশ্রু ছাড়া আর কিছু নয়।

আর পড়তে পারেন