শনিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

কুবির ইংরেজি বানানে পরিবর্তন, শিক্ষার্থীদের বিরূপ প্রতিক্রিয়া

আজকের কুমিল্লা ডট কম :
মার্চ ৬, ২০১৯
news-image

 

শাহাদাত বিপ্লব, কুবি ঃ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের(কুবি) ইংরেজী বানান Comilla University এর বানান পরিবর্তন করে Cumilla University করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার(অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মোঃ আবু তাহের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। তবে নাম পরিবর্তন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিরুপ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক এবং বর্তমান শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞপ্তি সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২ এপ্রিল ‘নিকার’ এর ১৩৫ তম সভায় কুমিল্লা জেলার ইংরেজি বানান Comilla থেকে Cumilla করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২৫ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭২ তম সিন্ডিকেট সভায় নাম পরিবর্তনের এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়া পরিবর্তনকৃত নামটি এখন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কাজে ব্যবহার করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

এদিকে নামের বানানের পরিবর্তন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এবং বর্তমান শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়ক এম আহসান হাবিব বলেন, ‘সাবেক হওয়ার পর আমি ভার্সিটির বিভিন্ন বিষয়ে বেশির ভাগ সময়ই নিরব পর্যবেক্ষকের ভূমিকা পালন করি। কিন্তু নাম পরিবর্তনের ব্যাপারটা আমার কাছে একটা চুড়ান্ত ফাউল কাজ মনে হচ্ছে। যত্তসব ডায়নামিক তেলবাজ আর স্বার্থান্ধের জমায়েত হয়েছে এই প্রাঙ্গনে; এটাই আমাদের দূর্ভাগ্য! আশ্চর্য হচ্ছে, সংশ্লিষ্টদের বেশির ভাগই এই চাটুকারিতা ও হঠকারিতার মিছিলে শামিল হয়েছে।’

জে এইচ ইমন নামের আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‘নাম পরিবর্তনের প্রভাবে আমরা বঞ্চিত হতে চাইনা। অনার্স সার্টিফিকেটে Comilla আর মাস্টার্স সার্টিফিকেটে Cumilla। এটা তো মেনে নেয়া যায়না।’

নৃবিজ্ঞান বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী মাজহারুল ইসলাম ইমরান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘শেষ পর্যন্ত কাপড়টাই খুলে নিলেন? এই বিশ্ববিদ্যালয়টা নরম মাটির পুতুলের মতো। সবাই খেলাচ্ছলে ইচ্ছামতো হাতাচ্ছে। কয়েকটা টি-শার্ট বানিয়েছিলাম, দুএকটি পুরস্কারও আছে। যেখানে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজিতে লিখা আছে ‘ Comilla University’ এইবার বাড়িতে গেলে নিয়ে আসবো সেগুলোও পরিবর্তন করে দিবেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন,‘কুমিল্লা জেলার নাম পরিবর্তন হওয়ার কারনে বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের ক্ষেত্রেও সিন্ডিকেটে সভার মাধ্যমে পরিবর্তন করা হয়েছে। আমরা শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির কর্তাব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করেই এ পরিবর্তন করেছি। নতুন সনদপত্র নতুন নামেই হবে। তবে আগে যারা সনদপত্র তুলে নিয়েছেন তাদের সমস্যা হলে পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।’

আর পড়তে পারেন